Wed. Mar 3rd, 2021

অপকর্মের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী হওয়া প্রতিটি মানুষের কর্তব্য

ডেইলি বিডি নিউজঃ বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া বলেছেন, অন্যায়, অবিচার, অন্যায্য ও অবৈধ অপকর্মের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী হওয়া প্রতিটি মানুষের কর্তব্য। ইসলাম আমাদেরকে সেই শিক্ষাই দেয়। মহানবী (সা.) অন্যায়কে প্রতিহত করতে নির্দেশ দিয়ে গেছেন। তাঁর উম্মত হিসেবে আমাদের কর্তব্য যেকোনো গণবিরোধী ক্ষমতাসীন গোষ্ঠির কৃত অনাচার আর অবৈধ ক্ষমতার দাপটে মানুষকে দমিয়ে রাখার দুঃশাসনের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলা।

পবিত্র আশুরা উপলক্ষে মঙ্গলবার রাতে গণমাধ্যমে প্রেরিত এক বাণীতে তিনি এসব কথা বলেন।

খালেদা জিয়া বলেন, ১০ মহররম সারাবিশ্বের মুসলিম উম্মাহর জন্য একটি অত্যন্ত তাৎপর্যময় দিন। পবিত্র আশুরার এ দিনে ঘটেছিল এক শোকাবহ ঘটনা। অন্যায় আর অবিচারের বিরুদ্ধে লড়াই করতে গিয়ে মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.) এর প্রিয় দৌহিত্র হজরত ইমাম হোসেন (রা.) এ দিনে শাহাদাৎবরণ করেছিলেন। কারবালা প্রান্তরে সেই হৃদয়বিদারক ঘটনা আজও মানুষকে কাঁদায় এবং বেদনার্ত করে। সত্য ও ন্যায়ের জন্য তাঁর আত্মত্যাগ বাংলাদেশসহ বিশ্বের মুসলমানদের জন্য অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত হয়ে আছে।

বাণীতে খালেদা জিয়া বলেন, শহীদ হজরত ইমাম হোসেন (রা.), তাঁর পরিবারের সদস্যবর্গ এবং কারবালার সব শহীদের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানাই, তাঁদের রুহের মাগফিরাত কামনা করি।

পবিত্র আশুরা উপলক্ষে অপরদিকে প‍ৃথক এক বাণীতে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর রলেন, হজরত মুহাম্মদ (সা.) এর প্রিয় দৌহিত্র হজজরত ইমাম হোসেন (রা.) এর শাহাদাৎরণের শোকাবহ স্মৃতিবিজড়িত দিন ১০ মহররম আমাদেরকে আজও গভীর দুঃখভারাক্রান্ত ও বেদনার্ত করে তোলে।

তিনি বলেন, অসত্য, জুলুম ও অন্যায়ের বিরুদ্ধে জেহাদ করতে গিয়ে তিনি এ দিনে জালিমের হাতে শহীদ হন। ব্যক্তিগত কোনো অভিলাষ নয় বরং অবিচার, জবরদস্তি আর মিথ্যা অহংকারকে প্রতিরোধ করতে গিয়ে তাঁর নিজের আত্মত্যাগের ঘটনা সারা দুনিয়ার সব মজলুমকে প্রতিবাদী হতে শতাব্দীর পর শতাব্দী ধরে মানুষকে প্রেরণা যুগিয়ে চলেছে।

বাণীতে তিনি আরো বলেন, আজকের এ দিনে আমি হজরত ইমাম হোসেন (রা.) এর স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানাই এবং তাঁর ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের রুহের মাগফিরাত কামনা করি।