Wed. Mar 3rd, 2021

গাজীপুর সিটির ১১৭টি ভবনকে ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা

মুহাম্মদ আতিকুর রহমান, গাজীপুর জেলা প্রতিনিধি ঃ গাজীপুর মহানগরের টঙ্গী এলাকার ১১৭টি ভবনকে ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করে নোটিশ জারি করেছে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন। প্রাচীন এসব ভবন নির্মাণের পর সক্ষমতার মেয়াদ অতিক্রম করেছে বলে জানিয়েছেন গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন টঙ্গী অঞ্চলের সহকারী প্রকৌশলী মোজাহিদুল ইসলাম।

তিনি বলেন, এসব ভবন নির্মাণ হয়েছে বহু বছর আগে। ভবনগুলোর নির্মাণসামগ্রী সক্ষমতার মেয়াদ অতিক্রম করেছে, কাঠামো হয়ে গেছে নড়বড়ে। এ ছাড়া অনেক ভবন মালিক রাজউক থেকে প্ল্যান অনুমোদন করিয়ে অনুমোদনের অতিরিক্ত বহুতল ভবন নির্মাণ করেছেন।

তবে নোটিশপ্রাপ্ত ভবন মালিকরা তাদের ভবন ঝুঁকিপূর্ণ নয় মর্মে সনদপত্র গ্রহণের জন্য অভিজ্ঞ প্রকৌশলী দিয়ে তা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে সিটি কর্পোরেশনে সেই রিপোর্ট জমা দিতে পারবেন বলেও জানান তিনি।

১২ অক্টোবর বুধবার সিটি কর্পোরেশনের তত্ত¡াবধায়ক প্রকৌশলী আব্দুল মতিন স্বাক্ষরিত নোটিশগুলো জারি করা হয়। আগামী বুধবারের মধ্যে ভবনের আর্কিটেকচারাল ডিজাইন, পাস করা প্ল্যান, ও সনদপত্র সংগ্রহ করে নোটিশের জবাব দিতে ভবন মালিকদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

ঝুঁকিমুক্ত সনদ জমা দেওয়ার নির্ধারিত সময় (আগামী বুধবার) অতিক্রম করার পর এসব ভবন ভেঙে ফেলার নোটিশ জারি করা হবে বলেও জানান সহকারী প্রকৌশলী মোজাহিদুল ইসলাম।

অপরদিকে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের সিনিয়র নগর পরিকল্পনাবিদ স্থপতি মইনুল ইসলাম জানান, সিটি কর্পোরেশনের ভবনের প্ল্যান পাস করার অনুমোদন নেই। প্ল্যান পাস করবে রাজউক। অনেক ভবন মালিক অবৈধভাবে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের কর্মকর্তাদের কাছ থেকে প্ল্যান অনুমোদন করিয়ে ভবন নির্মাণ করছেন। ফলে এসব ভবন হচ্ছে ঝুঁকিপূর্ণ। গাজীপুর মহানগরও ঝুঁকিপূর্ণ হয়েই গড়ে উঠছে।

নতুন এ মহানগরকে ঝুঁকিমুক্ত করে গড়ার লক্ষ্যেই এসব নোটিশ দেওয়া হচ্ছে।

এদিকে নোটিশ পেয়ে ভবন মালিকরা অনেকটাই কিংকর্তব্যবিমূঢ় হয়ে পড়েছেন। টঙ্গী স্টেশন রোডের ১২ তলাবিশিষ্ট আবেদা মেমোরিয়াল হাসপাতাল ভবন, খাঁপাড়া এলাকার বলেশ্বর দিঘীর পাড়ের ফারুক মিয়া, আউচপাড়া এলাকার আলম হোসেনসহ কয়েকজন ভবন মালিকের সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করা হয়েছে। তারা সংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলতে অস্বীকৃতি জানান।