|
এই সংবাদটি পড়েছেন 529 জন

রোহিঙ্গা ফেরৎ পাঠাতে পাকিস্তানকে পাশে চায় বাংলাদেশ

ডেইলি বিডি নিউজঃ মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সেনাবাহিনীর শুদ্ধি অভিযানের মুখে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সঙ্গে পাকিস্তানকেও পাশে চায় বাংলাদেশ। মঙ্গলবার পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী শাহিদ খাকান আব্বাসির সঙ্গে সাক্ষাত করে ইসলামাবাদে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার তারিক আহসান এই অনুরোধ জানান। ইসলামাবাদে বাংলাদেশ হাইকমিশন থেকে পাঠানো সংবাদ মাধ্যমে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়,  প্রধানমন্ত্রী আব্বাসির সঙ্গে সাক্ষাতকালে বাংলাদেশ হাইকমিশনার রোহিঙ্গা প্রত্যাবর্তনে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সঙ্গে পাকিস্তানকে যুক্ত হওয়ার আহ্বান জানান। জবাবে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী পাঁচ লাখের বেশি বাস্তুচ্যুত মিয়ানমারের রোহিঙ্গা নাগরিকদের আশ্রয় দেয়া এবং এর চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় বাংলাদেশের ভূমিকার প্রশংসা করেন। এ সময় পাকিস্তান প্রধানমন্ত্রী বলেন, মিয়ানমারকে অবশ্যই তার নাগরিক, বিশেষ করে সংখ্যালঘুদের সুরক্ষার দায়িত্ব নিতে হবে।

মানবিক সংকট মোকাবেলায় বাংলাদেশের সাথে সংহতি প্রকাশের জন্য প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান বাংলাদেশ হাইকমিশনার। সেই সাথে তিনি আগস্টে দায়িত্ব গ্রহণ করা নতুন প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানান।

বৈঠকে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ঢাকা-ইসলামাবাদের মধ্যে বিদ্যমান ভুল বোঝাবুঝি নিরসন ও শক্তিশালী দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক গড়ার আহ্বান জানান। তিনি দুই দেশের পররাষ্ট্র সচিব পর্যায়ের বৈঠক অনুষ্ঠানের ওপর গুরুত্ব দেন।

জবাবে বাংলাদেশের হাইকমিশনার পাকিস্তান প্রধানমন্ত্রীকে জানান, দীর্ঘদিন ঝুলে থাকা পররাষ্ট্র সচিব পর্যায়ের বৈঠক আয়োজনে বাংলাদেশ প্রস্তুত রয়েছে।

এ সময় পাক প্রধানমন্ত্রী দ্বিতীয় ওআইসি সম্মেলনে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের লাহোর সফর ও তার ঐতিহাসিক সিদ্ধান্তের কথা স্মরণ করেন। তিনি ওআইসিতে বাংলাদেশের সক্রিয় ভূমিকার প্রশংসা করেন।

এছাড়া দুই দেশের বাণিজ্য, অর্থনৈতিক সম্পর্ক ও যোগাযোগ বৃদ্ধির ওপর গুরুত্ব দেন পাক প্রধানমন্ত্রী।

পররাষ্ট্র সচিব পর্যায়ের বৈঠক সম্পর্কে হাইকমিশনার বলেন, পারস্পরিক সুবিধাজনক যে কোন সময়ে আলোচনার জন্য প্রস্তুত রয়েছে বাংলাদেশ।

পাকিস্তান ১৯৭৪ সালে বাংলাদেশকে কূটনৈতিকভাবে স্বীকৃতি দেয়ার পর পরই লাহোরে ওআইসির দ্বিতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।