|
এই সংবাদটি পড়েছেন 90 জন

সবাই কে নিয়ে আধুনিক ও উন্নত বড়লেখা গড়তে চাই: নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান সোহেব

ইউসুফ আহমদ ইমন, মৌলভীবাজার থেকে: বড়লেখা কে আধুনিক উপজেলায় রূপান্তরিত করার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করলেন নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান সোহেব আহমদ। উপজেলাবাসিকে নিয়ে তার স্বপ্নের কথা তুলে ধরে বলেন, এ উপজেলায় এখনও অনেক নাগরিক সমস্যা রয়েছে। আছে নানা দুর্ভোগ। ওই সব সমস্যার সমাধান করতে চান সকল সবাই কে সাথে নিয়ে। চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা সম্পর্কে এমনই কথা বললেন বিপুল ভোটে জয়ী সোহেব আহমদ।
সাংবাদিক ইউসুফ আহমদ ইমনের সঙ্গে একান্ত সাক্ষাতে নিজের এমন অনুভূতি তুলে ধরলেন বড়লেখা উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান সোহেব আহমদ।

ঘন্টাব্যাপী আলাপচারিতায় তিনি বলেন, ছাত্রজীবন থেকেই সাধারণ মানুষের অধিকার আদায়ের আন্দোলন করছি। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ বুকে ধারণ করে শেখ হাসিনার অনুপ্রেরণায় বর্তমানে আওয়ামীলীগের রাজনীতিতে জড়িত। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরতœ বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা গ্রামকে শহরের সুযোগ-সুবিধা দেয়ার যে প্রত্যয় গ্রহণ করেছেন তার একজন কর্মী হয়ে কাজ করতে চেয়েছিলাম। আর এ সুযোগ করে দিয়েছেন আমার বড়লেখা উপজেলার মানুষ। সদ্য সমাপ্ত ৫ম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান নির্বাচিত করে। বড়লেখার মানুষ আমাকে অকুন্ঠ সমর্থন দিয়ে ঋনি করে তুলেছেন। এই ঋণ উন্নয়ন আর বিপদ আপদে পাশে থেকে শোধ করতে চাই। তার জন্য সর্বস্তরের মানুষের সহযোগীতা চেয়েছেন সোহেব আহমদ। এছাড়াও দীর্ঘ আলাপচারিতায় শোনালেন বড়লেখা উপজেলা নিয়ে তার স্বপ্ন ও বড়লেখা উপজেলার মানুষদের নিয়ে তার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার কথা।

নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান সোহেব আহমদ বলেন, নানা প্রতিকূলতার মধ্যে জনগণ আমাকে ভোট দিয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত করেছেন। তাই আমি বড়লেখা উপজেলাবাসীর কাছে কৃতজ্ঞ। উন্নয়নের আকাক্সক্ষা আমি পূরণে চেষ্টা করব। সুখে দুঃখে পাশে থাকবো। নির্বাচনী প্রচার চালানোর সময় আমি নিজে দেখেছি যে সকল এলাকায় সমস্যা আছে। সেইগুলো চিহ্নিত করে সমাধানে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিব। তিনি আরো বলেন, বড়লেখা সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হিসেবেও ছিলাম। সেই অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে মাদক মুক্ত আদর্শ এবং আধুনিক উপজেলায় রূপান্তরিত করার প্রতয়ে উপজেলাবাসীকে দেয়া নির্বাচনী সব প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে কাজ শুরু করতে চাই।
চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব নেয়ার পর কোন কোন বিষয়ে অগ্রাধিকার দিচ্ছেন- এমন প্রশ্নের জবাবে বলেন, আমার উপজেলার অধীনে সকল বিভাগের কাজ কেই গুরুত্ব দিবো। তবে আমার প্রথমেই শিক্ষা ও স্বাস্থ্য বিভাগের দিকে নজর থাকবে। যাতে করে আমার উপজেলার যারা অসহায় দরিদ্র জনগোষ্ঠির স্বাস্থ্য সেবা ও শিক্ষা থেকে বঞ্চিত না হয়।

আপনার এলাকার ভোটারগণ কোনো সমস্যা নিয়ে আপনার শরণাপন্ন হলে আপনি কীভাবে সমাধান করেন- এমন প্রশ্নের জবাবে চেয়ারম্যান সোহেব আহমদ বলেন, জনগণের ভোটে যখন নির্বাচিত হয়েছে। যে কোন বিষয়ে আমার কাছে আসতেই পারে। স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও গণ্যমান্য লোকদের সাথে আলোচনা করে এবং সমাধানের একটা পথ বের করবো। তবে আমি বিশ^াস করি কেউ আমার কাছ থেকে হতাশ বা বিফল হয়ে ফিরে যাবে না।

চা শ্রমিকদের ভার্গপরিবর্তনে আপনি কি ভূমিকা নিবেন- এমন প্রশ্নের জবাবে বলেন, জাতীয় অর্থনীতিতে চা একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করলেও এ শিল্পের নেপথ্য মানুষগুলো নানা বঞ্চনা আর অবহেলার শিকার হয়ে আসছে। আমার উপজেলার সবগুলো চা শ্রমিকদের ভোট কেন্দ্র থেকে আমি নির্বাচিত হয়েছি। সুতরাং এ বিষয়ে আমি বিশেষ নজরে রেখে সরকারের সকল সবিধার আওতায় আনতে আমার ভুমিকা থাকবে। এবং কি মালিকপক্ষ যাতে করে তাদের কোন ভাবে হয়রানী না করতে পারে সে দিকে খেয়াল রাখবো।

আপনার উপজেলায় প্রধান সমস্যা গুলোর সমাধানে আপনি কী ব্যবস্থা নিবেন- এমন প্রশ্নের জবাবে সমাজ সচেতন চেয়ারম্যান সোহেব আহমদ বলেন, বর্তমান সরকার উন্নয়ন বান্ধব সরকার। তাই আমি বিশ^াস করি আমার উপজেলার যে সকল সমস্যা রয়েছে সেগুলো চিহ্নিত করে তার সমাধানের ব্যবস্থা নিতে ব্যাগ পেতে হবে না। তাছাড়া মাননীয় বন ও পরিবেশ মন্ত্রী আলহাজ¦ শাহাব উদ্দিন এমপি মহোদয়ের আন্তরিক প্রচেষ্টায় সেগুলো খুব দ্রুত সমাধান করতে পারবো।

বড়লেখা উপজেলার শিক্ষিত বেকারদের কর্মসংস্থানের ব্যাপারে কি ব্যবস্থা নেয়া যায় বলে মনে করেন-এমন প্রশ্নের জবাবে বলেন, এটা একটি জাতীয় সমস্যা। উপজেলা পরিষদ থেকে ব্যাপক কর্মসংস্থানের কোন সুযোগ নেই। তবে বেকার শিক্ষিত যুবক ও তরুণদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে বেকারত্ব কমানোর জন্য সর্বাত্তক চেষ্টা করবো।

উপজেলার সার্বিক উন্নয়নে ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার কথা জানতে চাইলে দূরদর্শী জনপ্রিয় চেয়ারম্যান সোহেব আহমদ বলেন, কৃষি, বিদ্যুৎ, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, রাস্তাঘাট, ব্রীজ কালভার্ট, শিল্প সাহিত্য সংস্কৃতি ও ক্রীড়াঙ্গনের উন্নয়ন করা তার স্বপ্ন। যে সমস্যাগুলো বিদ্যমানসহ সকল সমস্যার সমাধান করে একটি সুন্দর, আধুনিক ও গতিময় উপজেলা গড়ে তুলতে চাই।