|
এই সংবাদটি পড়েছেন 20 জন

জৈন্তাপুরে যুবকের আত্মহত্যা, পরিবারের দাবি পরিকল্পিত হত্যা

জৈন্তাপুর প্রতিনিধি :: সিলেটের জৈন্তাপুরে গাছের ডালে ঝুলে যুবকের আত্মহত্যার খবর পাওয়া গেছে। তবে পরিবারের দাবি ছেলেকে পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করে লাশ গাছের সাথে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে।

এলাকাবাসী ও পরিবার সূত্রে জানা যায়, উপজেলার চরিকাটা ইউনিয়নের নয়খেল দক্ষিণ গ্রামের মো. ইলিয়াছ মিয়ার ছেলে মো. সেলিম আহমদ(২৫) গত ১৫ মে সন্ধ্যায় বাড়ীতে ইফতারি করে বের হয়ে যায়। কিন্তু সে আর ফিরে আসেনি। পরিবারের সদস্যরা নিকট আত্মীয়দের সাথে যোগাযোগ করলেও কোন খোঁজ পাওয়া যায়নি।

বৃহস্পতিবার সকালে তার পরিবারের সদস্যরা দেখতে পান বাড়ীর সম্মুখের টিলায় কাঁঠাল গাছের ঢালের সাথে তার মৃতদেহ রশি দিয়ে ঝুলানো।

তাৎক্ষনিক বিষয়টি ইউপি সদস্যের মাধ্যমে জৈন্তাপুর মডেল থানায় অবহিত করা হয়। খবর পেয়ে জৈন্তাপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ খান মোঃ মাইনূল জাকিরের নির্দেশে এসআই প্রদীপ রায় সঙ্গীয় ফৌস নিয়ে লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল রির্পোট তৈরী করে অধিকত্বর তদন্তের জন্য মো. সেলিম আহমদের মৃত দেহটি সিলেট এম.এ.জি ওসমানি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

সেলিম আহমদ ৬মাস পূর্বে বিয়ে করে।

এবিষয়ে সেলিম আহমদের আপন চাচা মো. রইছ আলী জানান, তার বাতিজা ১৫ মে সন্ধ্যায় বাড়ীর সকলের সাথে ইফতারি খেয়ে বাড়ী থেকে বের হয়। সেহরি পর্যন্ত বাড়ীতে না ফিরায় আমরা নিকট আত্মীয়দের নিকট খোঁজ খবর নেই। কিন্তু কোথাও পাননি। পরদিন সকালে থাকে বাড়ীর সম্মুখের কাঠাঁল গাছের সাথে তার মৃতদেহ পাই।

তিনি দাবি করেন তার ভাতীজাকে পারিবারিক বিষয় নিয়ে প্রতিপক্ষের সাথে বিরোধ রয়েছে। তারা পরিকল্পিত ভাবে হত্যাকান্ড ঘটিয়ে সেলিমের লাশ গাছের ডালে বেঁধে রেখে যায়।

তিনি থানায় অভিযোগ করবেন বলে জানান।

এবিষয়ে জৈন্তাপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ খান মো. মইনুল জাকির বলেন বিষয়টি নিয়ে পুলিশ তদন্ত অব্যাহত রেখেছে। তবে ঘটনাটি ভিন্নতর হওয়ায় এখনই কিছু বলা যাচ্ছে না। আমরা তদন্ত চালাচ্ছি।