|
এই সংবাদটি পড়েছেন 66 জন

নবীগঞ্জ থেকে চুরি হওয়া পিকআপ ভ্যান উদ্ধার

নবীগঞ্জ প্রতিনিধিঃ নবীগঞ্জ শহর থেকে চুরি হওয়ার ৫ ঘন্টার মধ্যে একটি পিকআপ ভ্যান উদ্ধার করেছে পুলিশ। রোববার সকালে নবীগঞ্জ শহরতলীর গন্ধা-সালামতপুর সড়কের পাশে একটি জমি থেকে পিকআপ ভ্যানটি উদ্ধার করেন নবীগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) গোলাম দস্তগীরের নেতৃত্বে একদল পুলিশ। সূত্রে জানা যায়, উপজেলার নাদামপুর গ্রামের জুবায়ের আহমেদ শাহিন নামের এক ব্যবসায়ী নবীগঞ্জ শেরপুর রোডে অবস্থিত ফুলকলির সামনে হর্কাস মার্কেটের ভিতরে তার নিজ মালিকানাধিন পিকআপ (ঢাকা মেট্রো ১৮-২১২৯) প্রতি রাতেই রাখেন। হর্কাস মার্কেটে নিজস্ব পাহাড়াদার রয়েছে। এমনকি ফুলকলির সিসি ক্যামেরার আওতায় রয়েছে মার্কেটকি। এদিকে সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে চালক এসে দেখতে পায় পিকআপটি নেই। মালিককে খবর দিলে তারা এসে পাহাড়াদারকে জিজ্ঞাসা করলে পাহাড়াদার তাদেরকে জানায়, ভোরে এক লোক গাড়ি নিয়ে যাওয়ার সময় তিনি জিজ্ঞাসা করলে ওই লোক জানায় সে চালকের ছোট ভাই, জরুরি কিছু মালামাল বহন করতে হবে তাই তার ভাই তাকে চাবি দিয়ে পাঠিয়েছে। এর পর মালিকপক্ষ নবীগঞ্জ থানায় একটি অভিযোগ দিলে পিকআপ ভ্যনটি উদ্ধার ও চোরকে ধরতে তৎপরতা চালায় পুলিশ। স্থানীয়দের ধারনা পুলিশের অভিযানের খবরে চোরচক্র পিকআপটি নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার কোন রাস্তা না পেয়ে গন্ধা-সালামতপুর সড়কের পাশে একটি সড়কে একটি নির্জন স্থানে পেলে পালিয়ে যায়। পরে নবীগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) গোলাম দস্তগীরের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পিকআপটি উদ্ধার করেন। সিসি ক্যামেরার ফুটেজ পর্যালোচনা করে দেখা যায়, রোববার ভোর ৫ টার দিকে একে একে লুঙ্গি পড়া ৩ জন লোক হর্কাস মার্কেটে প্রবেশ করে। এদের মধ্যে এক জন লোক প্রায় ১০ মিনিটের মতো পাহাড়াদারের পাশে বসে আলাপ করতে দেখা গেছে। এর পর ওই লোক চলে যায়। এ সময় ঘুমিয়ে পড়েন পাহাড়াদার। এর প্রায় ৫ মিনিট পর পিকআপ ভ্যানটি নিয়ে পালিয়ে যায় চোর। কিন্তু এসময় মুখ ঢেকে ঘুমে ছিলেন পাহাড়াদার। এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) গোলাম দস্তগীর আহমেদ বলেন, অভিযোগের পরপরই আমরা অভিযান শুরু করি। একপর্যায়ে খবর আসে পিকআপটি গন্ধা-সালামতপুর সড়কে প্রবেশ করেছে। তাৎক্ষনিক আমরা গিয়ে দেখি একটি জমির মধ্যে পিকআপ ভ্যানটি পড়ে রয়েছে। চোরচক্রকে ধরতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।