|
এই সংবাদটি পড়েছেন 556 জন

মৌলভীবাজার কুলাউড়ায় কৃষি শুমারিতে গণনাকারী নিয়োগে স্বজনপ্রীতির আভিযোগ

সেলিম আহমেদ বিশেষ প্রতিনিধি : মৌলভীবাজার জেলার কৃষি শুমারিতে গণনাকারী নিয়োগে স্বজনপ্রীতির অভিযোগ কুলাউড়া উপজেলা কর্মধা ইউনিয়নে

আগামী ৯জুন থেকে সারা দেশে শুরু হচ্ছে কৃষি শুমারি ২০১৯। শুমারি কাজে গণনাকারি নিয়োগে ব্যাপক অনিয়ম আর সজনপ্রিতির অভিযোগ পাওয়া গেছে কুলাউড়া উপজেলার কর্মধা ইউনিয়নে। খুঁজ নিয়ে জানা গেছে কর্মধা ইউনিয়ন এর চেয়ারম্যান এম এ রহমান আতিক গণনাকারি হিসাবে নাম দেওয়ার জন্য সাইদুল ইসলাম সাহেদ ও শাহাজান নামের ২ জনকে দায়িত্ব দেন। কিন্তু এই ২ ব্যাক্তি তাদের শুধু আত্মীয় স্বজনের নাম দেন।কর্মধা ইউনিয়নে গণনা কাজ পরিচলানার জন্য মোট ৪০জন গনণাকারি নিয়োগ দেওয়া হয় এর মধ্যে বেশিরভাগ বুধপাশা এলাকার। জানাযায় হাশিমপুর গ্রামের শাহাজন মিয়া ওনার বোন চাচাতো বোন সহ এক ঘর থেকে ৩জনের নাম দিয়েছেন।
আর এই কাজে আগের অভিজ্ঞতা সম্পন্ন মানুষকে বাধ দেওয়া হয়েছে। এদিকে কর্মধা ইউনিয়নের কয়েকজন নাম অনিচ্ছুক এরা বলেন কৃষি গণনা শুমারিতে চেয়ারম্যানের আত্মীয় অনেকজন রয়েছেন, চেয়ারম্যান এম এ রহমান আতিক প্রতি নিয়োগ দেয়া লোকের কাছ থেকে ১ হাজার টাকা ঘোষ নিয়ে তাদেরকে নিয়োগ দেন ।এ বিষয়ে চেয়ারম্যান এম এ রহমান আতিকের কাছে ফোনে যোগাযোগ করা হলে চেয়ারম্যানের ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।
এ বিষয়ে উপজেলা পরিসংখ্যান অফিসে যোগাযোগ করলে বলা হয় চেয়ারম্যান যে তালিকা দিছেন তা অনুমোদন করা হয়েছে।
এখানে উল্লেখ্য যে এই সব বিষয় নিয়ে পরিষদের মেম্বার বৃন্দ ক্ষুব্দ চেয়ারম্যান এর উপর।