|
এই সংবাদটি পড়েছেন 68 জন

বিয়ের প্রলোভনে নারীকে অন্তঃসত্তা: ইউএনও’র বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের দাবি

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ   সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আসিফ ইমতিয়াজ কর্তৃক এক নারীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে অনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের ফলে অন্তঃসত্তা করা এবং হুমকির প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রবিবার সন্ধ্যা ৬টায় সুনামগঞ্জ শহরের পৌর মার্টেকের দোতলায় এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন নারীর আইনজীবি এডভোকেট মোঃ মনির হোসেন। তিনি লিখিত বক্তব্য বলেন, আমার মক্কেল ঐ নারীর সাথে ২০১৮ সালের ১৪ এপ্রিল ঢাকার মগবাজারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আসিফ ইমতিয়াজের সাথে পরিচয় ঘটে এবং মোবাইল নম্বর নিয়ে নিয়মিত যোগাযোগ করে চলেন। পরবর্তীতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আসিফ তার বিবাহিত স্ত্রীর সাথে ডিভোর্স এর প্রক্রিয়া চলছে বলে জানান এবং আমার মক্কেলকে বিয়ে করার প্রতিশ্রতি দেন । তিনি ২০১৮ সালের মে মাসের দিকে ঢাকার মীরপুর ৬ নম্বরে একটি বাসা ভাড়া নিয়ে আমার মক্কেলকে নিয়ে স্বামী স্ত্রী পরিচয় দিয়ে বসবাস শুরু করেন এবং ২০১৯ সালের জানুয়ারী মাস পর্যন্ত এভাবে অনৈতিক কার্যকলাপ চলে। ফলে আমার মক্কেল এক পর্যায়ে অন্তঃসত্তা হয়ে পড়েন। কিন্তু গত ৮ জুন আমার মক্কেল ঐ নারী সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসকের নিকট স্বাক্ষ্য নিতে আসার পথে ময়মনসিংহে ঐ নির্বাহী অফিসারের আত্মীয় স্বজনরা তার উপর হামলা চালিয়ে গলা পেঠ ও হাতে প্রচন্ড আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে গুরুতর আহত হয়ে তিনি ময়মনসিংহে চিকিৎসা নেন। এদিকে আজ ১৬ জুন সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসকের নির্দেশে স্বাক্ষ্য শেষে ন্যায় বিচারের স্বার্থে তার মক্কেলের পক্ষে এই সংবাদ সম্মেলনে সরকারের উচ্চ পর্যায়ে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের দাবী জানান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন এড. মোঃ জাকির হোসেন প্রমুখ।