|
এই সংবাদটি পড়েছেন 37 জন

সেই ট্যাংক সরানো ও শহীদ মিনার মেরামতের নির্দেশ

ডেইলি বিডি নিউজঃ বড়লেখার দাসের বাজার উচ্চ বিদ্যালয়ের শহীদ মিনারের সিঁড়ি ভেঙ্গে নির্মাণ করা টয়লেটের সেপটিক ট্যাংক সরানোর এবং শহীদ মিনার মেরামতের নির্দেশ দিয়েছেন ইউএনও মো. শামীম আল ইমরান।

গত ১৫ জুন ‘দি বাংলাদেশ টুডে’ অনলাইনে বাংলায় ‘শহীদ মিনার ভেঙ্গে টয়লেটের ট্যাংকি নির্মাণ!’ এই শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশ হলে সকালেই তিনি এ স্কুলে গিয়ে ঘটনার সত্যতা পান।

এসময় উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা হাওলাদার আজিজুল ইসলাম, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা উবায়েদ উল্লাহ খান, স্কুল কমিটির সভাপতি স্বপন চক্রবর্তী, প্রধান শিক্ষক দীপক রঞ্জন দাস, ইউপি আ’লীগের সভাপতি হাজী মুছব্বির আলী প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

ইউএনও শহীদ মিনারের একাংশ ভেঙ্গে টয়লেটের ট্যাংক নির্মাণের ঘটনায় স্কুল কমিটির সভাপতির ওপর চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেন। তিনি সংশ্লিষ্টদের দ্রুত সময়ের মধ্যে সেপটিক ট্যাংক সরানোর এবং শহীদ মিনার মেরামতের নির্দেশ দেন।

জানা গেছে, ভবনের পেছনে পর্যাপ্ত জায়গা থাকা স্বত্তে¡ও দাসের বাজার উচ্চ বিদ্যালয়ের শহীদ মিনারের সিঁিড় ভেঙ্গে নতুন একাডেমিক ভবনের টয়লেটের সেপটিক ট্যাংক নির্মাণ করা হয়। এতে বিভিন্ন মহলে চরম ক্ষোভ ও অসন্তোষ বিরাজ করছিল।

ইউএনও মো. শামীম আল ইমরান জানান, জাতীয় দৈনিকের সংবাদটি দৃষ্ঠিগোচর হওয়ার পর তাৎক্ষনিক তিনি স্কুলে গিয়ে ঘটনার সত্যতা পান। তিনি স্কুলের প্রধান শিক্ষক, কমিটির সভাপতি ও সংশ্লিষ্ট প্রকৌশলীকে সেপটিক ট্যাংক সরিয়ে ভবনের পেছনে নেয়ার এবং শহীদ মিনার মেরামতের নির্দেশ দিয়েছেন।