|
এই সংবাদটি পড়েছেন 54 জন

আত্মবিশ্বাসী বাংলাদেশের সামনে আজ অস্ট্রেলিয়া

ডেইলি বিডি নিউজঃ আত্মবিশ্বাসী বাংলাদেশের সামনে আজ অপ্রতিরোধ্য অস্ট্রেলিয়া। নটিংহ্যামের ট্রেন্ট ব্রিজে ম্যাচ শুরু হবে বাংলাদেশ সময় বিকাল সাড়ে তিনটায়। চলতি বিশ্বকাপে বাংলাদেশের এটি ষষ্ঠ ম্যাচ। ৫ ম্যাচে ৫ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান পঞ্চম।

দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়ে টুর্নামেন্টে দারুণ সূচনা করেছিল টাইগাররা। তবে দ্বিতীয় ও তৃতীয় ম্যাচে যথাক্রমে নিউজিল্যান্ড ও ইংল্যান্ডের কাছে পরাজয় এবং শ্রীলংকার সঙ্গে বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত ম্যাচে পয়েন্ট ভাগাভাগির জেরে সেমিফাইনালের রেস থেকে অনেকটাই পিছিয়ে পড়ে টাইগাররা। কিন্তু টনটনে পঞ্চম ম্যাচে ক্যারিবিয়ানদের বিপক্ষে অসাধারণ জয়ের পর ফের সেমিতে ওঠার স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছে বাংলাদেশ।

অন্যদিকে, পাঁচ ম্যাচের চারটিতে জিতে ৮ পয়েন্ট নিয়ে ইংল্যান্ডের সঙ্গে যৌথভাবে তালিকার শীর্ষে রয়েছে অস্ট্রেলিয়া। তবে নেট রান রেটে অস্ট্রেলিয়ার চেয়ে সুবিধাজনক অবস্থায় রয়েছে ইংল্যান্ড। অস্ট্রেলিয়ার একমাত্র পরাজয়টি এসেছে ভারতের সঙ্গে। ৯ জুন ওভালের ওই ম্যাচে ভারত ৩৬ রানে জয়ী হয়।

বাংলাদেশ ও অস্ট্রেলিয়া এ পর্যন্ত ২০টি ওডিআই খেলেছে। এর মধ্যে অস্ট্রেলিয়া জিতেছে ১৮টি বাংলাদেশ একটিতে। বাকি একটি ম্যাচে কোনো ফলাফল হয়নি। বাংলাদেশের একমাত্র জয়টি ছিল ২০০৫ সালের ১৮ জুন কার্ডিফের সোফিয়া গার্ডেনসে। আশরাফুলের সেঞ্চুরিতে ওই ম্যাচে বাংলাদেশ জিতেছিল ৫ উইকেটে।

টনটনে ক্যারিবিয়ানদের হারিয়ে দেওয়ার পর আত্মবিশ্বাসের পারদ অনেকটাই চড়ে গেছে টাইগারদের। সাকিবের সেঞ্চুরি, লিটনের সাহসীয় ইনিংস, এক ওভারে মোস্তাফিজের জোড়া আঘাত সাহসী করে তুলেছে বাংলাদেশকে। এই মাঠে আবার ২০০৫ সালের কার্ডিফের পুনরাবৃত্তি ঘটাতে মরিয়া তারা। এই টুর্নামেন্টে শুরুর পর অধিনায়ক মাশরাফি একটা কথার ওপর বারবার জোর দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, বাংলাদেশ উইকেট রিড করতে পারে না। নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে পরাজয়টি এসেছিল ওই কারণেই।

মাঠে খেলোয়াড়দের বডি ল্যাঙ্গুয়েজ নিয়েও সন্তুষ্ট ছিলেন না অধিনায়ক। তবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ম্যাচে এসব সমস্যা অনেকটাই কাটিয়ে উঠেছিল বাংলাদেশ। সেটা আজ অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গেও অব্যাহত থাকবে বলে আশা করা যেতেই পারে।

অন্যদিকে, চলতি টুর্নামেন্টে সেরাদের মত দাপট দেখিয়ে খেলছে ৫ বারের চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া। মার্কাস স্টয়নিসের ইনজুরিও দমাতে পারছে না তাদের। যদিও তাদের উইকেট কিপার অ্যালেক ক্যারি গতকাল বলেছেন, এই টুর্নামেন্টে তারা এখনো সেরা খেলাটা খেলতে পারেননি। অস্ট্রেলিয়ার মিচেল স্টার্ক ও প্যাট কামিন্সের গতিময় বল মোকাবেলা করা খুবই কঠিন এক কাজ। দুই ব্যাটসম্যান অ্যারন ফিঞ্চ ও ডেভিড ওয়ার্নার দলকে বরারব ভালো সূচনা এনে দিচ্ছেন। মিডল অর্ডারে প্রতিপক্ষের বোলারের আতঙ্ক হয়ে দেখা দিচ্ছেন স্টিভ স্মিথ।

চলতি বিশ্বকাপে আতঙ্কের নাম বৃষ্টি। তবে আজ নটিংহ্যামে বৃষ্টির তেমন কোনো সম্ভাবনা নেই। মাঝে মাঝে হালকা বৃষ্টি হলেও তার জন্য খেলা বন্ধ হয়ে যাওয়ার মত ঘটনা ঘটবে না। নটিংহ্যামের উইকেটের যা চরিত্র সেটা সকালের দিকে থাকবে ফাস্ট বোলারদের অনুকূলে। তবে বেলা যত বাড়তে থাকবে ততই ব্যাটসম্যানদের স্বাচ্ছন্দ্যও বাড়বে।