|
এই সংবাদটি পড়েছেন 36 জন

পূর্ণাঙ্গতা পাচ্ছে সিলেট জেলা স্টেডিয়াম

ডেইলি বিডি নিউজঃ আধুনিকায়ন হচ্ছে সিলেট জেলা স্টেডিয়াম। নগরীর রিকাবাীবাজার এলাকার এ স্টেডিয়ামের আধুনিয়কায়নের কাজ একন প্রায় শেষ পর্যায়ে। প্রায় ৯ মাস ধরে চলছে এ কাজ। ইতোমধ্যে নির্মাণ করা হয়েছে পাঁচ তলা বিশিষ্ট প্যাভিলিয়ন, ভিআইপি গ্যালারি। লিফট স্থাপন, গভীর নলকূপ স্থাপনের কাজও শেষ হয়েছে। বর্তমানে স্টেডিয়ামের প্রধান ফটককে দৃষ্টিনন্দন করার কাজ চলছে। এই কাজ শেষ হলে এ স্টেডিয়ামটি একটি পূর্ণাঙ্গ আধুনিক স্টেডিয়ামের রূপ পাবে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিস্টরা।

সিলেট জেলা স্টেডিয়াম সূত্রে জানা যায়, সিলেট জেলা স্টেডিয়াম এবং আবুল মাল আবদুল মুহিত ক্রীড়া কমপ্লেক্সের অধিকতর উন্নয়ন শীর্ষক একটি প্রকল্পের মাধ্যমে ১০ কোটি ৯৬ লাখ টাকা ব্যয়ে আধুনিকায়ন করা হচ্ছে জেলা স্টেডিয়ামকে। এই টাকা দিয়ে জেলা স্টেডিয়ামের পাশাপাশি আবুল মাল আব্দুল মুহিত ক্রীড়া কমপ্লেক্সেরও উন্নয়ন কাজ করা হয়েছে।

সিলেট জেলা স্টেডিয়ামকে আধুনিকায়ন প্রকল্পে ভিআইপি গ্যালারিসহ ৫ম তলা বিশিষ্ট প্যাভিলিয়ন ভবন নির্মাণ, ভিআইপি গ্যালারি শেড, লিফট স্থাপন, বিদ্যমান গ্যালারির নিচে পাবলিক টয়লেট ব্লক নির্মাণ, প্যাভিলিয়ন ভবনের সামনে ভিআইপি গ্যালারির জন্য চেয়ার সরবরাহ, বিদ্যমান ভবনসমূহের উন্নয়ন কাজ, মটর পাম্পসহ গভীর নলকূপ স্থাপন, এয়ারকুলার স্থাপন, ঘাস কাটার নরমাল মেশিন সরবরাহ, পানি সংরক্ষণের জন্য ট্যাংক ও স্টেডিয়ামের প্রধান ফটক দৃষ্টিনন্দন করার কাজ চলছেছে। এগুলো ছাড়াও বিদ্যমান গ্যালারি ও ভবনগুলোকে সংস্কার এবং রং করা হয়েছে।

সিলেট জেলা স্টেডিয়ামের দায়িত্বরতদের সাথে কথা বলে জানা যায়, ২০১৬ সালে ১০ এপ্রিল তৎকালীন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের কাছে স্টেডিয়ামের উন্নয়ন কাজের জন্য প্রস্তাবনাপত্র দেন সিলেট জেলা জেলা ক্রীড়া সংস্থার নেতৃবৃন্দ। এর প্রেক্ষিতে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের অধীনে সিলেট জেলা স্টেডিয়ামের উন্নয়ন কাজের জন্য বরাদ্ধ আসে। পরবর্তীতে ২০১৮ সালের ১৯ অক্টোবর এই কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। এরপরই পুরোদমে শুরু হয় স্টেডিয়ামের আধুনিকায়নের কাজ।

গত মাসের ২২ তারিখ স্টেডিয়ামের উন্নয়ন কাজ পরিদর্শন করেছেন সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। এসময় তিনি স্টেডিয়ামের আধুনিকায়ন দেখে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন। এসময় তিনি বলেন, সিলেট জেলা স্টেডিয়ামের এই রূপ দেখে আত্মতৃপ্তি পেয়েছি। একটা সময় ছিল যখন এই স্টেডিয়ামের ভিআইপিতে গাদাগাদি করে বসতে হতো কারণ এর অবকাঠামো অনেক ছোট ছিল। এখন আর এসব সমস্যা হবে না। সিলেট জেলা স্টেডিয়াম সত্যিকারের একটি পূর্ণাঙ্গ অত্যাধুনিক স্টেডিয়াম হিসাবে রূপলাভ করেছে।

এ ব্যাপারে সিলেট জেলা ক্রীড়া সংস্থার কোষাধ্যক্ষ মো. সিরাজউদ্দিন বলেন, সিলেটের খেলোয়াড় ও ক্রীড়াপ্রেমীদের স্বপ্ন ছিল সিলেট জেলা স্টেডিয়ামের আধুনিকায়ন। দীর্ঘদিন পর সেই স্বপ্ন পূরণ হতে যাচ্ছে। এর পুরো কীর্তিত্ব আমাদের সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত সাহেবের। তাঁর কারণেই সিলেট জেলা স্টেডিয়ামের এই নতুন রূপ। এই আধুনিকায়নের কাজের জন্য সিলেট জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মাহি উদ্দিন আহমদ সেলিমও অনেক কষ্ট করেছেন। এই বরাদ্ধ আনতে অনেক দৌড়ঝাঁপ করেছেন। স্টেডিয়ামের কাজের তদারকি করেছেন।

তিনি বলেন, স্টেডিয়াম আধুনিকায়নের মূল কাজ শেষ। এখন টুকটাক ফিনিসিংয়ের কাজ চলছে। আমরা চাচ্ছি কোনো টুর্নামেন্ট বা ইভেন্টের মাধ্যমে স্টেডিয়ামের এই নতুন রূপ সবার সামনে তুলে ধরতে এবং উদ্বোধনী অনুষ্ঠান করতে।

মো. সিরাজউদ্দিন আরো বলেন, স্টেডিয়ামের আধুনিকায়ন হওয়ায় অনেক কক্ষ তৈরি হয়েছে। তাই এখন কোনো ক্যাম্প হলে খেলোয়াড়দের আবাসিক সুবিধাও এখানে দেওয়া যাবে।