|
এই সংবাদটি পড়েছেন 23 জন

মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্সঃ এসপি মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন

ডেইলি বিডি নিউজঃ সিলেটের কোম্পানীগঞ্জে মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গী বিরোধী মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

১০ জুলাই বিকেল ৪টায় উপজেলা অডিটোরিয়ামে সেকেন্ড অফিসার বদি উজজামান এর পরিচালনায়, এতে সভাপতিত্ব করেন কোম্পানীগঞ্জ, গোয়াইনঘাট সার্কেল এ এসপি নজরুল ইসলাম।

প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিলেটের নবাগত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন, পিপিএম।

প্রধান অতিথি মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন পিপিএম) তাঁর বক্তব্যে বলেন, আমার অঙ্গীকার সিলেট থেকে মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদ নির্মূল করা। ২০১০সাল থেকে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলার দিকে অগ্রসর হচ্ছে বাংলাদেশ। আর এই সোনার বাংলা গড়ার পথে প্রধান বাধা হচ্ছে মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদ। এদের বিরুদ্ধে সামাজিক প্রতিরোধ গড়ে তুলবেন তখনই সমাজ থেকে মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদ দূর করা সম্ভব হবে।
তিনি আরো বলেন, আপনাদের সন্তান যখন রাতে ঘরে ফিরে খেলার ছলে তার মুখের গন্ধে শুঁকে দেখেন নেশার গন্ধ পাওয়া যায় কি না। এভাবেই আপনার সন্তানদের খোঁজ খবর রাখেন। দেখবেন আপনার আমার সচেতনতায় সমাজ থেকে মাদক দূর হয়ে যাবে।
তিনি সবাইকে বলেন, আমাকে তথ্য দিন কারা মাদক ব্যবসায়ী, চাঁদাবাজ, চোর, সন্ত্রাস আমি আপনাদের পরিচয় গোপন রাখবো। আপনাদের সহযোগিতায় সমাজ থেকে সকল অপরাধ দূর করা সম্ভব হবে। আমি মাদক,সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষনা করেছি।

কোম্পানীগঞ্জ থানা অফিসার্স ইনচার্জ তাজুল ইসলাম বলেন, আমরা কোম্পানীগঞ্জ থেকে মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গী নির্মূল করতে সর্বাত্ত্বক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। পুলিশ হলো মানুষের আস্তার যায়গা। আমি দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে থানায় এসে কেউ কখনও জিডি করতে হয়রানির শিকার হয়নি।

তিনি সবার সামনে কথা দেন কেউ থানায় এসে জিডি করতে চাইলে মাত্র পাঁচ মিনিটের ভিতরে তা করতে পারবেন, এমন কি যদি তিনি থানায় নাও থাকেন দায়িত্বরত অফিসার দ্রুত সময়ের মধ্যে সেবা দিয়ে যাবেন। এতে কোন টাকা পয়সা লাগবে না।

উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হাজী শামীম আহমদ নবাগত পুলিশ সুপারকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদ নির্মূল করতে আমরা প্রশাসনের সাথে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করে যাচ্ছি। তিনি আরো বলেন, ধলাই নদীতে বালুবাহী নৌকা থেকে বিভিন্ন জায়গায় স্থানিয় চাঁদাবাজ চক্র চাঁদাবাজি করে যাচ্ছে। আপনি এদের বিষয়ে ব্যবস্থা নিবেন বলে আমার বিশ্বাস।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিজেন ব্যনার্জী বলেন, কোম্পানীগঞ্জকে একটি মডেল উপজেলা হিসেবে গড়ে তুলতে চাই। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী স্পষ্ট ঘোষণা দিয়েছেন মাদক, সন্ত্রাস জঙ্গীবাদ বাংলাদেশ থেকে দূর করতে হবে। আমরা সেই পথেই নিয়ে যাচ্ছি কোম্পানীগঞ্জ উপজেলাকে। এ সময় সাংবাদিকদেরকে সঠিক তথ্য তুলে ধরার আহ্বান জানান তিনি।

বক্তব্য রাখেন, ২নং পুর্ব ইসলামপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বাবুল মিয়া।
সাবেক উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নাসরীন জাহান ফাতেমা।
উপজেলা আওয়ামিলীগের সাধারণ সম্পাদক আপ্তাব আলী কালা মিয়া।
সাংবাদিক আবুল হোসেন।
উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আব্দুন নুর।
কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামিলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলী আমজদ।
উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান লাল মিয়া।

সভায় উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ মানবাধীকার ফাউন্ডেশন কোম্পানীগঞ্জ শাখার সভাপতি ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ ১নং ইসলাম পুর ইউনিয়ন শাখার সহ সভাপতি এম হাবিবুল্লাহ জাবেদ, কোম্পানীগঞ্জ অনলাইন প্রেসক্লাবের সভাপতি ও দৈনিক সিলকো সংবাদের সম্পাদক তারিকুল ইসলাম, আজকের খবর এর সম্পাদক ও কোম্পানীগঞ্জ অনলাইন প্রেসক্লাবে যুগ্ম সম্পাদক আব্দুল জলিল, সংবাদিক কবির আহমদ প্রমুখ।

সভায় উন্মুক্ত প্রশ্ন করেন,
বিল্লাল আহমদ,হুমায়ুন কবির মছব্বির, সাংবাদিক আবিদুর রহমান, শ্রমিক নেতা সিরাজুল ইসলাম,বাছির মিয়া।