|
এই সংবাদটি পড়েছেন 19 জন

সকল মাদক ব্যবসায়ীদেরকে আত্মসমর্পণের নির্দেশ, নবাগত ওসি মীর মো. আব্দুন নাসের।

জকিগঞ্জ প্রতিনিধি :: সিলেটের জকিগঞ্জ উপজেলাকে মাদক মুক্ত করতে আগামী শুক্রবারের মধ্যে তালিকাভূক্ত ও তালিকার বাইরে থাকা সকল মাদক ব্যবসায়ীদেরকে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দিয়েছেন জকিগঞ্জ থানার নবাগত ওসি মীর মো. আব্দুন নাসের। শনিবার রাতে আনুষ্ঠানিকভাবে দায়িত্ব গ্রহণ করেই তিনি পৌরসভার মেয়র, ইউপি চেয়ারম্যান ও সাংবাদিকদের সাথে সৌজন্য স্বাক্ষাতকালে মাদক কারবারিদের কাছে এ নির্দেশ পৌছে দিতে তিনি অনুরোধ করেন।

তিনি বলেন, ভারতের সীমান্তঘেষা উপজেলা জকিগঞ্জ। এই উপজেলায় মাদক ভয়াবহ রূপ ধারণ করেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছেন। আমি প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশকে শতভাগ বাস্তবায়ন করতে চাই। ইতিমধ্যে জকিগঞ্জকে ইয়াবা ও মাদকের নিরাপদ রুট হিসেবে গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। এখন থেকে জকিগঞ্জ উপজেলাকে মাদকের নিরাপদ রুট হিসেবে ব্যবহারের সুযোগ নেই। মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ চলছে, চলবে। মাদক ব্যবসা বন্ধ করতে যা করার দরকার হবে তা করা হবে। যারা মাদক ব্যবসা, পাচার, উৎপাদন ও বহনের সাথে জড়িত রয়েছেন তারা আগামী শুক্রবারের মধ্যে মাদক কারবার ছেড়ে আত্মসমর্পণের সুযোগ দেয়া হলো। আত্মসমর্পণের পর তাদেরকে তিনমাস মনিটরিং করা হবে। এই ৩ মাসের মধ্যে যদি তারা মাদক ব্যবসা ছেড়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসে তাহলে তাদের সব ধরনের সহযোগিতা করব। আর কেউ এ পথ থেকে ফিরে না আসলে কঠোর হস্তে দমন করা হবে।

এক প্রশ্নের জবাবে ওসি বলেন, আত্মসমর্পণের নির্দেশের পরও যদি কেউ সাড়া না দিয়ে ব্যবসা করেন তাহলে তাকে যেভাবেই হোক না কেন মোকাবেলা করব। আমি প্রাথমিকভাবে কঠোর না হয়ে সুযোগ দিচ্ছি। এরপর আর কোন সুযোগ থাকবেনা। আমার আহবানে যারা সাড়া দিয়ে আত্মসমর্পণ করে মাদক ব্যবসা ছেড়ে দিবেন তাদের বিরুদ্ধে নতুন করে মাদক মামলা হবেনা তবে আগে দায়ের হওয়া মামলা ও বিচারকার্যক্রম স্বাভাবিক নিয়মে চলবে। আইন শৃঙ্খলায় নিয়জিত কেউ এ ব্যবসার সাথে জড়িত থাকলে তাকেও আইনের আওতায় আনা হবে। জকিগঞ্জ উপজেলাকে মাদকমুক্ত করার লক্ষে পুলিশ সুপার আমাকে এ উপজেলায় নিযুক্ত করেছেন। আগামী ৩ মাসের মধ্যে জকিগঞ্জ উপজেলা মাদকমুক্ত হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন।

প্রসঙ্গত, জকিগঞ্জ শুক্রবার রাতে জকিগঞ্জ থানায় মীর মো. আব্দুন নাসের ওসি হিসেবে নিযুক্ত হন। এরআগে তিনি সিলেট জেলা মাদকবিরোধী সেলের পরিদর্শক থাকাকালে জকিগঞ্জে মাদকবিরোধী অভিযান করে বেশ কয়েকজন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হন।