|
এই সংবাদটি পড়েছেন 30 জন

ঈদুল আযহা উপলক্ষে এসএমপির ১৫ নির্দেশনা

ডেইলি বিডি নিউজঃ পবিত্র ঈদুল আযহায় ছিনতাইকারী, পশুর হাটে পকেটমার, প্রতারক, বাসা বাড়িতে নিরাপত্তা, পশু পরিবহণে নিরাপত্তা ও জাল টাকাসহ বিভিন্ন বিষয়ে জনস্বার্থে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে ১৫ টি নির্দেশনা দেয়া হয়ে।

মঙ্গলবার সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (গণমাধ্যম) জেদান আল মুসা স্বাক্ষরিত এ নির্দেশনায় গণমাধ্যমে পাঠানো হয়। একই সাথে যে কোন বিষয়ে পুলিশের সহযোগিতা গ্রহণের জন্যও বলা হয়েছে। দেয়া হয়েছে যোগাযোগের জন্য মোবাইল নম্বর।

প্রেরিত নির্দেশনাগুলো হলো নিম্নরূপ- ব্যাংক, অর্থলগ্নি প্রতিষ্ঠানসহ অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের বড় ধরনের আর্থিক লেনদেনের ক্ষেত্রে পুলিশের সহায়তা গ্রহণ করার জন্য অনুরোধ করা হচ্ছে। প্রতিটি পশুর হাটে জাল টাকা সনাক্তে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের বুথে জাল টাকা সনাক্ত করন মেশিন দ্বারা টাকা পরীক্ষা করার অনুরোধ করা হলো। এক হাটের গরু জোর করে অন্য হাটে নেয়া যাবে না এবং পশুবাহী গাড়ী/ট্রাক পরিবহনে বাধা প্রদান করা যাবে না। গরুবাহী/পশুবাহী গাড়ীর সামনে ব্যানারে হাটের নাম বড়/স্পষ্ট করে লিখতে হবে। প্রতিটি পশুর হাটে আলাদা পোশাকে স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগ করতে হবে এবং প্রয়োজনে হাটের চারপাশে সিসি ক্যামেরা স্থাপন করার জন্য অনুরোধ করা হচ্ছে। পশুর হাটে পর্যাপ্ত পরিমাণে লাইটিং ও জেনারেটর এর ব্যবস্থা করার জন্য অনুরোধ করা যাচ্ছে। কোন ভাবে হাসিলের টাকা বেশি নেয়া যাবে না এবং হাসিলের কমিশন প্রকাশ্যে ঝুলিয়ে রাখতে হবে। হাটের নির্ধারিত এলাকার বাইরে গরু রাখা যাবে না এবং রাস্তার উপর গরু ও গরুর ট্রাক রেখে যানজট সৃষ্টি করা যাবে না। অজ্ঞান ও মলম পার্টি সম্পর্কে সচেতন থাকা ও হাটে আসা ব্যবসায়ীদের সচেতন করা এবং এ সংক্রান্ত সচেতনতামূলক ব্যানার, পোষ্টার লাগাতে হবে। যথাসময়ে হাটের বজ্র অপসারণ করতে হবে যাতে কোন নোংরা বা আবর্জনা না থাকে। ঈদ উপলক্ষে ছুটিতে গেলে বা বাসা ত্যাগ করলে আপনার বাসার দরজা-জানালা সঠিকভাবে তালাবন্ধ করুন, প্রয়োজনে আপনার বাসা/অফিসে ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা ব্যবহার করুন, দরজায় নিরাপত্তা এলার্মযুক্ত তালা ব্যবহার করুন, মহল্লা ও বাড়ির সামনে সন্দেহজনক কাউকে/দুষ্কৃতিকারীকে ঘোরাফেরা করতে দেখলে স্থানীয় থানা পুলিশ কে অবহিত করুন। ঈদের আগে/পরে সময় নিয়ে ভ্রমণ পরিকল্পনা করুন। শেষ মুহুর্তে ট্রেন ও বাসের মারাত্মক ভিড় এড়িয়ে চলুন। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে অতিরিক্ত যাত্রী ট্রেন ও বাসে চলাচল করবেন না। ট্রেন ও বাসের ছাদে এবং ট্রাকে ভ্রমণ বিপদজনক। পুরুষ ও নারী পকেটমার এবং প্রতারক হতে সর্তক থাকুন। বাস টার্মিনাল সমূহে, রাস্তায় ও পশুর হাটে আগত ক্রেতা বিক্রেতাগন কোন অপরিচিত ব্যক্তি,অজ্ঞান পার্টির নিকট হতে কোন খাদ্যদ্রব্য গ্রহণ না করার জন্য অনুরোধ করা হলো। রাত্রিকালে জনবহুল রাস্তা দিয়ে চলাচল করার চেষ্টা করুন। রাস্তায় চলাচলের সময় সঙ্গে থাকা মূল্যবান সামগ্রী বা টাকা পয়সা সম্পর্কে সাবধানতা অবলম্বন করুন এবং মধ্য কিংবা শেষ রাতে বাস স্ট্যান্ডে নামলে সতর্কতার সাথে চলাচল করুন, প্রয়োজনে পুলিশের সহায়তা নিন। সন্দেহজনক কোন ব্যক্তি বা বস্তু প্রত্যক্ষ করলে অথবা আপনার যে কোন মতামত/ অভিমত/ অভিযোগ জানাতে নিম্নবর্ণিত নাম্বার সমূহে অবহিত করার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করা হইল।

পুলিশ কন্ট্রোল রুম (২৪ ঘণ্টা খোলা) ০১৭১৩৩৭৪৩৭৫-০১৯৯৫১০০১০০-০৮২১-৭১৬৯৬৮, ট্রাফিক কন্ট্রোল রুম ০৮২১-৭১৮০২৮ ডিবি কন্ট্রোল রুম ০৮২১-৭২০০৬৬ জরুরী সেবা-৯৯৯, ওসি , কোতোয়ালি- ০১৭১৩৩৭৪৫১৭ ওসি, জালালাবাদ-০১৭১৩৩৭৪৫২২, ওসি,এয়ারপোর্ট-০১৭১৩৩৭৪৫২১, ওসি, দক্ষিণ সুরমা-০১৭১৩৩৭৪৫১৮, ওসি, শাহপরান(র)-০১৭১৩৩৭৪৩১০, ওসি, মোগলাবাজার-০১৭১৩৩৭৪৫১৯, পুলিশ কমিশনার-০১৭১৩-৩৭৪৫০৬, অতিঃ পুঃ কমিশনার- ০১৭১৩-৩৭৪৫০৭, ডিসি (সদর ওপ্রশাসন) ০১৭১৩-৩৭৪৫০৮, ডিসি (উত্তর) ০১৭১৩-৩৭৪৫০, ডিসি (দক্ষিণ) ০১৭১৩-৩৭৪৫১০, ডিসি (ট্রাফিক) ০১৭১৩-৩৭৪৫১১, ডিসি (ডিবি) ০১৭৬৯-৬৯১৩২৭।

এর আগে সকাল ১১ টায় এসএমপি’র সদর দপ্তর নাইওরপুল এর সভাকক্ষে আসন্ন পবিত্র ঈদ-উল-আযহা উদযাপনের লক্ষে কোরবানির পশুর হাটের ইজারাদার, ঈদ জামাত ও সার্বিক আইন-শৃঙ্খলা সংক্রান্তে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

পুলিশ কমিশনার গোলাম কিবরিয়া বিপিএম এর সভাপতিত্বে উক্ত সভায় উপস্থিত ছিলেন সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান, অতি: পুলিশ কমিশনার পরিতোষ ঘোষ, উপ-পুলিশ কমিশনার (সদর ও প্রশাসন) কামরুল আমিন, উপ-পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) ফয়সল মাহমুদ, উপ-পুলিশ কমিশনার (পিওএম) তোফায়েল আহমেদ, উপ-পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) সোহেল রেজা পিপিএম, উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিবি) সঞ্জয় সরকার, বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার প্রতিনিধি, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের নির্বাহী প্রকৌশলী রুহুল আলম, অতি: উপ-পুলিশ কমিশনার (মিডিয়া) জেদান আল মুসা ও সকল অতি: উপ-পুলিশ কমিশনার, র‌্যাব-৯ এর পরিচালক (গণমাধ্যম) অতি: পুলিশ সুপার মো. মনিরুজ্জামান, সিলেট জেলার অতি: পুলিশ সুপার মো. আমিনুল ইসলাম, অতি: জেলা প্রানিসম্পদ অফিসার ড. মো. শহিদুল ইসলাম, বাংলাদেশ জাতীয় ইমাম সমিতি সিলেট মহানগর এর সভাপতি মাওলানা হাবীব আহমেদ শিহাব, ইসলামিক ফাউন্ডেশন সিলেটের সহকারী পরিচালক মো. আনোয়ারুল কাদির, সিলেট জেলা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. জিয়াউল কবির, ফায়ার সার্ভিসের প্রতিনিধি, হাইওয়ে পুলিশের প্রতিনিধি, সকল থানার অফিসার ইনচার্জসহ বিভিন্ন গরুর হাটের ইজারাদারা উপস্থিত ছিলেন।

উক্ত সভায় সকলের মতামতের ভিত্তিতে পবিত্র ঈদ-উল-আযহা ও কুরবানির পশুর হাট সংক্রান্তে সার্বিক আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়। তাছাড়া সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ এর পক্ষ থেকে সিলেট নগরবাসী ও হাটের ইজারাদারগণ উপরোক্ত নির্দেশাবলী মেনে চলার অনুরোধ জানানো হয়।