Sun. Mar 29th, 2020

সিলেট জেলা ছাত্রলীগের কমিটির স্থগিতাদেশ নিয়ে বিভ্রান্তি

ডেইলি বিডি নিউজঃ সিলেট জেলা ছাত্রলীগের নবগঠিত পূর্ণাঙ্গ কমিটি নিয়ে সিলেটের রাজনীতিতে দেখা দিচ্ছে একের পর এক বিভ্রান্তি।

কমিটি অনুমোদনের পর থেকেই কমিটিতে পদ নিয়ে অসন্তুষ্ট থাকা নেতারা ও পদবঞ্চিত নেতারা এক হয়ে এ কমিটির বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করছেন এবং এ কমিটিতে অছাত্র, বিবাহিত ও ছাত্রদল, শিবির থেকে অনুপ্রবেশকারীরা স্থান পেয়েছেন দাবী করে কমিটি বাতিল করার দাবীতে আন্দোলন করে যাচ্ছেন। কিন্তু বিদ্রোহীদের এই কার্যকলাপে কোন মাথা ব্যাথা নেই কেন্দ্রীয় কমিটি এবং পুর্ণাঙ্গ কমিটির সমর্থনে থাকা নেতাদের।

এ কমিটির বিরুদ্ধে অনাস্থার কথা জানাতে রবিবার কেন্দ্রের দ্বারস্থ হন সিলেট জেলা ছাত্রলীগের বিদ্রোহীরা। কেন্দ্রের সাথে সাক্ষাত শেষে সিলেট জেলা ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি আগামী ৭ জানুয়ারী পর্যন্ত স্থগিত রাখা হয়েছে বলে তারা বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এবং গণমাধ্যমকে জানান।

বিদ্রোহীদের নেতৃত্বে থাকা সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি নিজাম উদ্দিন বলেন, কেন্দ্রীয় কমিটির নির্দেশে জেলা ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ এ কমিটির কার্যক্রম আপাতত স্থগিত করা হয়েছে। স্থগিতাদেশের ব্যাপারে কেন্দ্র থেকে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদককে অবহিত করা হয়েছে এবং পদপ্রাপ্ত নেতাদেরকে সাংগঠনিক পরিচয়, পোস্টার-ব্যানার  না ব্যবহারের আদেশ দেওয়া হয়েছে এবং ৭ জানুয়ারীর পুর্বে তাদের হাতে কমিটির চিঠি দেওয়া হবে না।

এদিকে এ ধরণের কোন কথা তাদের কানে পৌছায়নি দাবী করে সভাপতি শাহরিয়ায় আলম সামাদ ও সাধারণ সম্পাদক এম. রায়হান চৌধুরী বলেন, কেন্দ্র থেকে আমরা এধরনের কোন নির্দেশ পাননি। এগুলো পাগলের প্রলাপ ছাড়া আর কিছুই নয়।

এ ব্যাপারে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক এস. এম. জাকির হোসাইন সাংবাদিকদেরকে জানান, সিলেট জেলা ছাত্রলীগের কমিটি নিয়ে অসন্তুষ্ট থাকা নেতারা তার সাথে দেখা করতে এলে তিনি তাদেরকে এক হয়ে থাকার জন্য নির্দেশ দেন এবং তাদের দেওয়া অভিযোগ তিনি রেখেছেন বলে জানান। জাকির আরো বলেন, ৭ জানুয়ারী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সিলেটে আসার কথা রয়েছে। এরপরে উভয় পক্ষকে  নিয়ে একত্রে বসে সমস্যার সমাধান করা হবে।