Fri. Oct 30th, 2020

মাদক নিরাময় কেন্দ্রে যুবককে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় দুজন গ্রেপ্তার

ডেইলি বিডি নিউজঃ সাভারে মাদকাসক্তি নিরাময় কেন্দ্রে চিকিৎসার নামে জাহাঙ্গীর আলম (৩৮) নামে এক যুবককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগে দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তার একজন চিকিৎসার নামে নির্যাতনের কথা স্বীকার করেছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- নিউ আদর মাদকাসক্তি নিরাময় কেন্দ্রের কর্মচারী ধামরাইয়ের ছোট চন্দ্রাইল গ্রামের আনোয়ার হোসেনের ছেলে মো. রবিউল হোসেন (২০) এবং কালিয়াকৈরের মেদি আশুলাই দেওয়ানপাড়া গ্রামের মো. আব্দুস ছোবাহানের ছেলে মো. লাবিব আহম্মেদ (২৭)।

শনিবার দুপুরে লাবিব ও রবিউলকে সাত দিনের পুলিশ রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানো হয়।

আদালতে রবিউল হোসেন ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেন। তবে লাবিব আহম্মেদ স্বীকারোক্তি না দেয়ায় তাকে অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন বিজ্ঞ আদালত।
এর আগে শুক্রবার রাতে নিহতের বড় ভাই মানিক মিয়া বাদী হয়ে সাভার মডেল থানায় হত্যা মামলাটি দায়ের করেন। মামলার অন্য আসামিরা হলেন- ওই মাদকাসক্তি নিরাময় কেন্দ্রের পরিচালক মো. আরিফুল ইসলাম জুয়েল (৪০), আরিফুল ইসলাম রাজু (৩০), রোমান মৃধা (৩৫)। তারা রেডিওকলোনী বাসস্ট্যান্ডের উত্তরা মার্কেটে অবস্থিত নিউ আদর মাদকাসক্তি নিরাময় কেন্দ্রের মালিক বলে জানিয়েছে পুলিশ।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সাভার মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মনিরুজ্জামান মোল্লা বলেন, বৃহস্পতিবার রাতে নিউ আদর মাদকাসক্তি নিরাময় কেন্দ্রে চিকিৎসার জাহাঙ্গীর আলম নামে এক যুবককে হাত-পা বেঁধে মুখে গামছা গুঁজে দিয়ে বেধড়ক পিটুনি দেয় আসামিরা। একপর্যায়ে তার নাকে মুখে পানি ঢেলে রাতভর মেঝেতে ফেলে রাখা হলে শ্বাসকষ্ট সহ্য করতে না পেরে মারা যান জাহাঙ্গীর। পরে শুক্রবার সকালে নির্যাতনকারীরা নিহতের মরদেহটি এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়।

এ ঘটনায় নিহতের বড় ভাই বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করলে রাতেই অভিযান চালিয়ে হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে নির্যাতনকারী দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পরে শনিবার দুপুরে সাত দিনের পুলিশ রিমান্ড চেয়ে তাদের আদালতে পাঠানো হয়।