Fri. Jun 5th, 2020

লিটন-তামিমের সেঞ্চুরিতে সিলেটে রানের এভারেস্টে বাংলাদেশ

ডেইলি বিডি নিউজঃ কাকে রেখে কার কথা বলবেন! লিটন দাস আর তামিম ইকবাল যেন এ দিন প্রতিযোগিতা করে রান বাড়ানোয় মত্ত হলেন! দুজনেই করলেন সেঞ্চুরি। লিটন গড়লেন বাংলাদেশের পক্ষে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রানের ইনিংস। ঝড় বয়ে গেল জিম্বাবুয়ের বোলারদের উপর। বাংলাদেশ চড়ে বসে বসলো রানের এভারেস্টে।

সিলেটে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বাংলাদেশ করেছে ৩ উইকেটে ৩২২।

বৃষ্টির কারণে ম্যাচ নেমে আসে ৪৩ ওভারে। ফলে ডার্কওয়ার্থ লুইস পদ্ধতিতে জিম্বাবুয়েকে করতে হবে ৩৪২ রান!

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে এই সিরিজের প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশ করে ৩২১ রান। লেখা হয় জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সর্বোচ্চ রানের নতুন ইনিংস। আগের সর্বোচ্চ ছিল ৩২০ রান, ২০০৯ সালে করেছিল বাংলাদেশ।

কিন্তু দ্বিতীয় ম্যাচেই ৩২২ রান তুলে নতুন করে রেকর্ড লিখেন বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা। আজ শেষ ওয়ানডেতে ৪৩ ওভারেই সেই ৩২২ রান ছুঁয়েছেন তামিম-লিটনরা।

দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে সেঞ্চুরি তুলে নেন লিটন দাস আর তামিম ইকবাল। নিজের রেকর্ড নিজেই ভেঙে গেল মঙ্গলবার (৩ মার্চ) দুর্দান্ত এক ইনিংস খেলেছিলেন তামিম ইকবাল। করেছিলেন ১৩৬ বলে ১৫৮ রান। যা বাংলাদেশের কোনো ব্যাটসম্যানের জন্য ছিল সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত ইনিংস। সেই রেকর্ড আজ পেছনে ফেলে দিয়েছেন লিটন দাস। করেছেন ১৪২ বলে ১৭৬! তাঁর ইনিংসে ছিল ১৬ চার, ৮ ছক্কা! স্ট্রাইক রেট ১২৩.০৭।

লিটন যখন ৪০.৫ ওভারে কার্ল মুম্বার বলে সিকান্দার রাজার হাতে ক্যাচ দিয়ে বিদায় নিচ্ছেন, তখন বাংলাদেশের রান ২৯২! উদ্বোধনী জুটিতে তো বটেই, যেকোনো উইকেট জুটিতে এটাই বাংলাদেশের সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড। আগের সর্বোচ্চ ছিল ২২৪ রান। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে কার্ডিফে পঞ্চম উইকেট জুটিতে করেছিলেন সাকিব আল হাসান আর মাহমুদউল্লাহ, ২০১৭ সালের ৯ জুন। এছাড়া উদ্বোধনী জুটিতে আগের সর্বোচ্চ শাহরিয়ার হোসেন বিদ্যুৎ আর মেহরাব হোসেন অপির ১৭০ রান। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষেই তাঁরা করেছিলেন ১৯৯৯ সালে। ২১ বছর পর সেই জুটি আজ পেছনে পড়েছে।

লিটন আউট হয়ে ফিরে গেলেও তামিম ছিলেন অবিচল। জিম্বাবুয়ের বোলাদের উপর ঝড় বইয়ে শেষপর্যন্ত অপরাজিত থাকেন ১০৯ বলে ১২৮ রানে; তাঁর ইনিংসে চার ৭টি, ছয় ৬টি!

মাহমুদউল্লাহ (৩) দ্রুত আউট হয়ে ফিরে যান। ইনিংসের শেষ বলে ক্যাচ দেন অভিষিক্ত আফিফ হোসেন ধ্রুব (৭)।

সূত্র ঃ সিলেটভিউ২৪ডটকম