Wed. Apr 1st, 2020

ফেঞ্চুগঞ্জে প্রবাসীদের অবাধে মেলামেশা

রুমেল আলী, ফেঞ্চুগঞ্জ: সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলায় গোয়েন্দা তালিকা অনুযায়ী চলতি মাসে ২৯২ জন প্রবাসী বিভিন্ন দেশ থেকে ফেঞ্চুগঞ্জ ফিরেছেন। এর মধ্যে ২জন বাড়িতে কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন। দুজন শঙ্কামুক্ত। অবশিষ্ট ২৯০ জনের কোনো হদিস নেই। বাড়িতে কোয়ারেন্টিনে থাকার কথা থাকলেও বিদেশফেরত এসব ব্যক্তি অবাধ মেলামেশা করছেন। উপজেলা প্রশাসনের সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য জানা গেছে।

উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, এসবি থেকে পাঠানো তালিকা অনুযায়ী ১ থেকে ১৮ মার্চ পর্যন্ত সিলেট জেলার ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলায় বিদেশ থেকে ফিরেছেন ২৯২ জন। কিসের ভিত্তিতে এসবি এ তালিকা পাঠিয়েছে, জানতে চাইলে কর্মকর্তা জানান, পাসপোর্টে সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জ ঠিকানা ব্যবহার করে বিদেশ গেছেন এবং চলতি মাসে যাঁরা দেশে ফিরেছেন, এমন মানুষের নাম তালিকায় স্থান পেয়েছে। এ তালিকা পুলিশ সুপারের (এসপি) মাধ্যমে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগেও পাঠানো হয়েছে।

এলাকাবাসী জানান, বিদেশ থেকে ফেরা অনেকে বাড়িতে কোয়ারেন্টিনে না থেকে পরিবার ও এলাকাবাসীর সঙ্গে মেলামেশা করেছেন। এতে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে। আমরা সবাই করোনাভাইরাসের ঝুঁকির মধ্যে রয়েছি। শুধু স্বাস্থ্য বিভাগের একার পক্ষে পরিস্থিতি মোকাবিলা করা সম্ভব নয়, সব বিভাগের সমন্বয়ে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে।

ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. কামরুজ্জামান জানান, ‘গোয়েন্দা তালিকায় বিদেশফেরত মানুষের সংখ্যা ২৯২ হয়ে থাকলে অবশিষ্ট ২৯০ জনের কোনো তথ্য নেই আমাদের কাছে। তাঁরা কোথায় কীভাবে রয়েছেন, কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন, নাকি নেই, তা আমরা জানতে পারছি না।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রাখী আহমেদ বলেন, বিদেশ থেকে দেশে ফেরা ব্যক্তিদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা ১৪দিন বাড়িতে কোয়ারেন্টিনে ও যাদের করোনাভাইরাস ধরা পড়বে, তাদের হাসপাতালে কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। জনসচেতনতার জন্য হাটবাজারে ও গ্রামগঞ্জে মাইকিং করানো হয়েছে। গতকাল শুক্রবার জুম্মার নামাজের সময় প্রতিটি মসজিদে করোনাভাইরাস নিয়ে মানুষকে সচেতন থাকার জন্য মসজিদের ইমামদের আলোচনা করতে জনপ্রতিনিধিদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।