Main Menu

জগন্নাথপুরে বাড়ছে করোনা রোগী: নতুন আক্রান্ত ৫

জগন্নাথপুর প্রতিনিধি: করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলায় প্রতিদিনই বাড়ছে। দ্রুত করোনা সংক্রমন ছড়িয়ে পড়ছে। গত ২৪ ঘন্টায় ৫ জন করোনা ভাইরাসে পজেটিভ রিপোর্ট আসছে। এনিয়ে উপজেলায় মোট করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়ালো ২৫ জনে। দ্রুত করোনা সংক্রামন ছড়িয়ে পড়ায় আতংকগ্রস্থ হয়ে পড়ছে সাধারণ জনগণ।

উপজেলায় বাজার হাটে মানা হচ্ছেনা স্বাস্থ্যবিধি। মাস্ক ব্যবহার করছেন না বেশির ভাগ মানুষ। সামাজিক দুরত্ব বজায় করে চলাচল করা হচ্ছে না।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে ঘরে থাকার নির্দেশনা থাকলেও উপজেলার প্রতিটি বাজারে ঠেকানো যাচ্ছে না মানুষের সমাগম। প্রতিদিন সকাল থেকে রাত পর্যন্ত বাজারের দোকান গুলোতে বাড়ছে জনসমাগম। প্রতিটি রাস্তা ঘাটেও বাড়ছে মানুষের চলাচল। অযতা বাজারের দোকানে লোক জমায়েত হয়ে দিচ্ছে আড্ডা। মোটরসাইকেল থেকে শুরু করে অবাধে চলছে ছোট বড় যানবাহন।

তবে, উপজেলার বাজারগুলো ও রাস্তা ঘাটে ভিড় কমাতে এবং করোনার ভাইরাস এড়াতে সমাগম না করে জনগণকে নিজ নিজ ঘরে থাকার অভিরাম প্রচারনা চালাচ্ছে উপজেলা প্রশাসন। এক শ্রেনীর অসেচতন মানুষ করোনা ভাইরাস সংক্রামনকে আমলে না নিয়ে বাজারে আরো অপপ্রচার আর গল্পে লিপ্ত রয়েছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার (৯জুন) সিলেট শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের পিসিআর ল্যাব থেকে প্রাপ্ত কোভিড-১৯ পরীক্ষার রিপোর্টে জগন্নাথপুর উপজেলায় আরও ৫ জন ব্যাক্তি পজেটিভ সনাক্ত হয়েছেন। এর মধ্যে ৩ জন জগন্নাথপুর পৌরসভার এবং ২ জন সৈয়দপুর শাহারপাড়া ইউনিয়নের বাসিন্দা। বুধবার (১০জুন) উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা.নাজমুস সাদাত এর নেতৃত্বে একটি মেডিকেল টিম প্রাথমিক পরীক্ষা শেষে আক্রান্ত ব্যক্তিদেরকে হোম আইসোলেশনে রাখেন এবং চিকিৎসা সহ পরবর্তী স্বাস্থ্যবার্তা প্রদান করেন।

এ ছাড়াও আক্রান্ত ব্যক্তিদের পরিবারের সবাইকে শতভাগ হোম কোয়ারান্টাইনে থাকা নিশ্চিতকরন সহ আশেপাশের বাড়িগুলোকে সরকার নির্দেশিত স্বাস্থ্যবিধি মেনে সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থা অবলম্বন করার জন্য কঠোর নির্দেশনা প্রদান করা হয়। এ সময় জগন্নাথপুর পৌরসভার ভারপ্রাপ্ত মেয়র মো. শফিকুল হক, ওয়ার্ড কাউন্সিলার মো. আবাব মিয়া, সৈয়দপুর শাহারপাড়া ইউনিয়নের প্যানেল চেয়ারম্যান সৈয়দ লিলু মিয়া, সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শক রুমী রায় ও মোঃ আমিরুল ইসলাম, স্বাস্থ্য সহকারী সুমন্ত দেবনাথ, মোঃ আবু তাহের, গীতা রাণী দেবনাথ ও সৈয়দ মমিনুল হক এবং এম্বুলেন্স চালক প্রাণেশ চন্দ্র দাস সহ এলাকার সন্মানিত গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা.মধু সুধন ধর জানান, জগন্নাথপুর উপজেলায় এখন পর্যন্ত সর্বমোট ২৫ জন ব্যক্তি ‘কোভিড-১৯’ পজিটিভ হয়েছেন। এর মধ্যে ৭ জন সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরেছেন, ২ জন সিলেট কোভিড হাসপাতালে, ১ জন জগন্নাথপুর হাসপাতালে প্রাতিষ্ঠানিক আইসোলেশনে এবং ১৫ জন নিজেদের বাড়িতে হোম আইসোলেশনে থেকে চিকিৎসাধীন আছেন।






Related News

Comments are Closed