Fri. Aug 14th, 2020

এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি প্রস্তুতি নেওয়ার আহ্বান শিক্ষামন্ত্রীর

ডেইলি বিডি নিউজঃ শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, করোনার কারণে স্থগিত এইচএসসি পরীক্ষার নতুন তারিখ অন্ততপক্ষে পরীক্ষা শুরু হওয়ার দুই সপ্তাহ আগে নোটিশ দিয়ে জানিয়ে দেয়া হবে। হুট করে আজকে বলব না যে কালকে পরীক্ষা। যাতে শিক্ষার্থীরা পরীক্ষার প্রস্তুতিটুকু আরও ভালো করে নিতে পারেন।

গতকাল শনিবার (২০ জুন ২০২০) রাতে একটি অনলাইন গণমাধ্যমের’ ফেসবুক লাইভে এসে এ কথা বলেন শিক্ষামন্ত্রী।

এসময় ঘরবন্দি পরীক্ষার্থীর উদ্দেশ্যে ডা. দীপু মনি বলেছেন, হঠাৎ পরীক্ষা পিছিয়ে গেলে, একটা ভীষণ রকম হতাশা কাজ করে। আমি নিশ্চিত যারা এইচএসসি পরীক্ষার্থী তাদেরও একই অবস্থা। আপনাদের জায়গায় থাকলে আমিও একই রকম বোধ করতাম।
এই অবস্থায় আমি আপনাদের বলব- একটা পাবলিক পরীক্ষায় যেখানে কয়েক লাখ শিক্ষার্থী অংশ নেবে। তাদের সঙ্গে যুক্ত হবেন পরিবার, শিক্ষকরা। এসব মিলে আরও কয়েক লাখ। আর করোনার এই সংকটে এতো লক্ষ মানুষকে নিয়ে পরীক্ষার আয়োজন করে এতো স্বাস্থ্য ঝুঁকি আমরা নিতে পারি না।
আবার অধিকাংশদের গণপরিবহন ব্যবহার করে পরীক্ষাকেন্দ্রে আসতে হবে, তাহলে তাদের বিপদ আরও বেড়ে যাবে। এর ফলে শিক্ষার্থীরাসহ পরিবারের সদস্যরাও ঝুঁকিতে পড়বেন। এমনকি তাদের মাধ্যমে এলাকার অন্যরাও সংক্রমিত হতে পারেন। সুতরাং এই রকম একটি স্বাস্থ্যঝুঁকিতে যাওয়ার মতো অবস্থা এখন আমাদের নেই।
শিক্ষামন্ত্রী বলেন, সেই কারণে এই মুহূর্তে পরীক্ষাটি নেয়ার ব্যাপারে আমরা কিছু করতে পারছি না। যখন পরিবেশ আরও স্বাভাবিক হয়ে আসবে। যখন পরীক্ষা নেয়ার মতো পরিস্থিতি তৈরি হবে। তখন অবশ্যই আমরা পরীক্ষা নেব। আর আমরা পরীক্ষা নেয়ার জন্য পুরোপুরি প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছিলাম। তারপরে কোভিডের কারণে এটি বন্ধ করে দিতে হয়েছে। আমাদের প্রস্তুতি আছে। সুতরাং শিক্ষার্থীরাও তাদের প্রস্তুতি বজায় রাখবে।

এছাড়া এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের আরেকটি অনুরোধ জানিয়েছেন ডা. দীপ মনি। তিনি বলেন, এরপরে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য খুব কম সময়ই পাবেন। এখন কোভিডের কারণে যে সময় নষ্ট হচ্ছে তা সেসময় পুষিয়ে নেবার চেষ্টা করব। স্বাভাবিক সময়ে এইচএসসি পরীক্ষা দেয়ার পর যে সময়টুকু পান, তা এবার পাবেন না। কাজেই এখনই এইচএসসি পরীক্ষার প্রস্তুতি বজায় রেখে, বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির প্রস্তুতিও নিতে থাকেন।