Thu. Jul 9th, 2020

সিলেটে নামে বেনামে লাইভ টিভি ও নিউজ পোর্টাল, ফেসবুকে সাংবাদিক নিয়োগ বাণিজ্য

আজিজুর রহমান :: করোনা ভাইরাসের লকডাউনের শুরু থেকে সিলেটের সকল স্থানীয় প্রিন্ট পত্রিকা বন্ধ ও জাতীয় পত্রিকা গুলো সিলেটে আসা বন্ধ হওয়ার পর শুরু হয় নামে বেনামে লাইভ টিভি ও নিউজ পোর্টাল খোলার হিড়িক। ঘরবন্ধি মানুষের একমাত্র পথ ছিলো অনলাইনে সংবাদ দেখা। আর সেই সুযোগকে কাজে লাগাতে শুরু হয় ফেসবুকে একটি পেইজ খুলে যে কোন একটি নাম দিয়ে টিভির যাত্রা। শুধু সিলেট নগরী নয় গোটা বিভাগ জুড়ে শুরু হয়েছে এই ব্যবসা। পাঠকের চেয়ে টিভি-পোর্টালের মালিক বেশি। এদের বন্ধ করবে কে? প্রশ্ন সচেতন মহলের।

কোন কিছুর তোয়াক্কা না করেই শুরু হয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল ও টিভি খোলার হিড়িক। বর্তমানে এই নামে বেনামে লাইভ টিভি ও নিউজ পোর্টালের কারণে সিলেটের সাংবাদিকতা আজ হুমকির মুখে। এই পোর্টাল ও টিভির মালিকরা ফেসবুকে শুরু করছে প্রতিনিধি নিয়োগ বাণিজ্য।

দেখা গেছে, সিলেটের সিনিয়র রাজনৈতিক নেতারা এবং সামাজিক সংগঠক ও প্রশাসনের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাও এসকল টিভি নামক ফেসবুক পেইজে লাইভে যুক্ত হন। যাদের দেখার পর মানুষ একবার হলেও এসকল পেইজে লাইক ও কমেন্ট করতে বাধ্য হয়। এরমধ্যে হাতেগোনা কয়েকটি অনলাইন টিভি ও ফেসবুক পেইজ সিলেটের কয়েকজন সিনিয়র সাংবাদিক পরিচালনা করছেন। যাদের মাধ্যমে পাঠক ভালো ভালো সংবাদ দেখতে পারছে এবং সমাজের সঠিক খবরাখবর জানতে পরছে। এ ছাড়া সবকটা হচ্ছে একমাত্র ধান্দা। এরাই মানুষকে ধোকা দিয়ে নিয়োগ বাণিজ্য করছে। লাইভে আসার পর সঠিক করে কথা বলা তো দূরের কথা এদের চেচামেচিতে মানুষ আর বিরক্ত হয়। রাস্তায় বের হলেই দেখা এই অসাধু টিভি সাংবাদিকদের।

অন্যদিকে আরেক চক্র শত শত ফেসবুক পেইজ ও পোর্টালের অসাধু মালিকরা বোষ্টিংয়ের মাধ্যমে ফেসবুকে বিজ্ঞাপন দেন, ‘জরুরি বিত্তিতে সাংবাদিক নিয়োগ দেওয়া হবে অথবা আপনি কি সাংবাদিক হতে চান এবং আমরা কিছু সংখ্যক সাংবাদিক নিয়োগ দিচ্ছি’। সাথে দেওয়া থাকে যোগাযোগের জন্য মোবাইল নম্বার। এমন ভাবে তারা বিজ্ঞাপন প্রচার করছেন যা দেখে যে কোন লোক তাদের প্রতারণার ফাঁদে পড়ে। তাদের সাথে যোগাযোগ করার সাথে সাথে বানিয়ে দেন বড় সাংবাদিক এবং সাথে একটি কার্ড দিয়ে হাতিয়ে নেন বড় অংকের টাকা। এরপর যাকে বড় সাংবাদিক বানানো হয় সে হয়ে যায় সাংবাদিক নামধারী শীর্ষ চাঁদাবাজ।

সিলেটের কয়েকজন সিনিয়র সাংবাদিকের ফেসবুক আইডি ও ক্রাইম সিলেটের অনুসন্ধানে দেখা গেছে, নামে বেনামে লাইভ টিভি ও নিউজ পোর্টাল খোলার হিড়িক। আর এদের কারণে মানুষ সঠিক সংবাদ থেকে বঞ্চিত হচ্ছে এবং এরাই লাইক পাওয়ার জন্য না বুঝে যে কোন মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করে ও দ্রুত ফেসবুকে যে কোন ধরণের গুজব ছড়ায়।

নামে বেনামে লাইভ টিভি ও নিউজ পোর্টাল দিয়ে নিয়োগ বাণিজ্য এবং মিথ্যা সংবাদ প্রচার বন্ধের জন্য প্রশাসনের আশুহস্থক্ষেপ কামনা করছেন সিলেটের সাংবাদিক সমাজ ও সচেতন মহল।

সূত্রঃক্রাইমসিলেট