Fri. Aug 14th, 2020

ধরেই যেন আমরা চোর হয়ে যাচ্ছি : সংসদে প্রধানমন্ত্রী

ডেইলি বিডি নিউজঃ দুর্নীতিবাজদের ধরার পরও সরকারের সমালোচনা হওয়ায় বিস্মিত হয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি জাতীয় সংসদে বলেছেন, আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর কে কোন দলের সেটি বিবেচনায় নেয়া হচ্ছে না। দুর্নীতি ও অনিয়মে জড়িতদের আমরা ধরে যাচ্ছি। ধরেই যেন আমরা চোর হয়ে যাচ্ছি। আমরা ধরার পর আমাদের দোষারোপ করা হয়।

বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদের বাজেট অধিবেশনের সমাপনী বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। এর আগে বিরোধীদলীয় সংসদ সদস্যরা বহুল আলোচিত রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান সাহেদের দুর্নীতিসহ বিভিন্ন অনিয়মের কথা তুলে ধরেন।

এর জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের মানুষের চরিত্র নষ্ট করে দিয়ে গেছে ১৯৭৫-এর পর যারা রাতের অন্ধকারে অস্ত্র হাতে নিয়ে ক্ষমতায় এসেছিল। কারণ অবৈধভাবে ক্ষমতা দখল করে সেই ক্ষমতা কুক্ষিগত করার জন্য এরা মানুষকে দুর্নীতি শিখিয়েছে, কালো টাকা শিখিয়েছে, ঋণখেলাপি শিখিয়েছে, তারা এই সমাজটাকে কলূষিত করে গেছে। মানুষ আগে যে একটা আদর্শ নিয়ে চলত, নীতি নিয়ে চলত, দীর্ঘদিন এই মিলিটারি ডিক্টেটরশিপ এ দেশের মানুষের চরিত্র হরণ করেছে। কারণ তাদের অবৈধ ক্ষমতাটাকে নিষ্কণ্টক করাই ছিল তাদের লক্ষ্য। তারা বছরের পর বছর এই দুর্নীতির বীজ বপন করেছে। তা মহীরুহ হয়ে গেছে।

পচাত্তরপরবর্তী শাসকদের সমালোচনা করে শেখ হাসিনা বলেন, মানুষের চরিত্রটাই নষ্ট করে দিয়ে গেছে। সে ক্ষেত্রে চরিত্রহীনতা একেবারে ওপর থেকে নিচ পর্যন্ত ছিল। সেখানে আপনি যতই চেষ্টা করুন এর মূলোৎপাটন যথেষ্ট কঠিন। তার পরও এর মধ্যে যে খবরগুলো পাচ্ছেন, এটি কারা করছেন? আওয়ামী লীগ সরকার আসার পর কে কোন দলের সেটি বড় কথা নয়- এ ধরনের দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত, অনিয়মে জড়িত আমরা ধরে যাচ্ছি। ধরেই যেন আমরা চোর হয়ে যাচ্ছি। আমরা ধরার পর আমাদের দোষারোপ করা হয়।

সংসদ নেতা বলেন, এটিই হচ্ছে দুর্ভাগ্য। এর আগে তো দুর্নীতি ছিল, অনিয়ম ছিল। সেভাবেই রাষ্ট্র চলেছে। কিন্তু আমরা আসার পর সেগুলো মোকাবেলা করার চেষ্টা করছি। আমাদের প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে। এই অনিয়মগুলো আমরা নিশ্চয়ই মানব না। যে যাই হোক তার বিরুদ্ধে আমরা ব্যবস্থা নিচ্ছি, নেব এবং এটা অব্যাহত থাকবে।

বাজেটের সমালোচকদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ঘরে বসে বাজেটের সমালোচনা করা, এটা অনেকেই করতে পারে। কিন্তু মাঠে গিয়ে কাজ করার মতো কয়জন আছে? বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক যারা তারাই শুধু এই কাজ করে। তারাই শুধু মাঠে গিয়ে কাজ করে।