Sat. Aug 8th, 2020

পল্লবী থানায় বিস্ফোরণ, ৪ পুলিশ আহত

ডেইলি বিডি নিউজঃ রাজধানীর মিরপুরের পল্লবী থানায় বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। এতে চার পুলিশ সদস্যসহ একজন সিভিলিয়ান আহত হয়েছেন। আহত পুলিশ সদস্যরা হলেন-এসআই অংকুশ, এসআই শফিক, এসআই রুমি ও ইন্সপেক্টর ইমদাদ।

বুধবার (২৯ জুলাই) সকাল ৭টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) ডিসি (মিডিয়া) ওয়ালিদ হোসেন।

তিনি বলেন, ভোরে পল্লবী এলাকা থেকে তিন আসামিকে গ্রেফতার করে পল্লবী থানা হেফাজতে রাখা হয়। মিরপুর এলাকার একজন রাজনীতিক নেতাকে খুন করার জন্য তাদেরকে ভাড়া করা হয়েছিল বলে অভিযোগ ছিল তাদের বিরুদ্ধে।

‘গ্রেফতারের পর তাদের থানায় আনা হয়। তাদের কাছ থেকে দুইটি অস্ত্র ও কিছু জিনিসপত্র উদ্ধার করে পুলিশ। এগুলো থানার ইন্সপেক্টর অপারেশন্সের রুমে রাখা হয়। উদ্ধারকৃত জিনিসপত্রগুলোর মধ্যে ওজন মাপার মেশিন-সদৃশ্য একটি বস্তু ছিল। সকাল ৭টায় হঠাৎ সেটি বিস্ফোরণ হয়।’

ডিসি ওয়ালিদ হোসেন আরও জানান, এ ঘটনায় মোট চারজন পুলিশ ও একজন সিভিলিয়ান আহত হয়েছেন। তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল (ঢামেক) পাঠানো হয়েছে।

তিনি বলেন, পুলিশ এ বিষয়ে বিস্তারিত জানার চেষ্টা করছে। ঢামেক পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ ইন্সপেক্টর বাচ্চু মিয়া বলেন, ‘আহতদের মধ্যে এসআই অংকুশকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে চক্ষু হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। এসআই শফিক ও ইন্সপেক্টর ইমদাদ প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে চলে গেছেন। আর আহত এসআই রুমি ও সিভিলিয়ান রিয়াজ ঢামেকে চিকিৎসাধীন আছেন।’

এদিকে যে রুমে বিস্ফোরণ ঘটেছে সেই রুমের দুইটি জানালার মধ্যে একটি ভেঙে নিচে রাস্তায় পড়েছে। অপরটি ওপরে ঝুলে আছে।

থানার গেটে প্রবেশাধিকার সংরক্ষিত করা হয়েছে। থানায় আগতদের গেটে জিজ্ঞাসাবাদ করে ভেতরে ঢুকতে দেয়া হচ্ছে। তবে গণমাধ্যমকর্মীদের থানার ভেতরে ঢুকতে দেয়া হচ্ছে না। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে আলামত সংগ্রহ করছে।

ঘটনাস্থলে পুলিশ ছাড়াও র‍্যাব, ডিবি ও অ্যান্টি-টেররিজম ইউনিট রয়েছে।

সম্প্রতি দেশজুড়ে জঙ্গি হামলার আশঙ্কায় পুলিশ সদর দফতর থেকে সতর্কবার্তা জারি করা হয়েছে। সেখানে পুলিশকে টার্গেট করে বা পুলিশ স্থাপনায় হামলা হতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়।

এতে আরও বলা হয়, বাংলাদেশে হত্যাকাণ্ড, নাশকতা ও ধ্বংসাত্মকমূলক কর্মকাণ্ডের পরিকল্পনা করছে জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেটের (আইএস) আদলে গঠিত নব্য জেএমবির সদস্যরা।

সতর্কবার্তায় গোয়েন্দা তথ্যের বরাতে পুলিশ (পুলিশের কোনো টিম, স্থাপনা বা যানবাহন) বিমানবন্দর, ৩ দেশের দূতাবাস ভবন বা দূতাবাস সংশ্লিষ্ট বিশেষ ব্যক্তি অথবা শিয়া-আহমদিয়া উপাসনালয়, মাজার কেন্দ্রিক মসজিদ, চার্চ, প্যাগোডা, মন্দিরগুলোকে টার্গেট করা হতে পারে বলে উল্লেখ করা হয়েছে। হামলার সম্ভাব্য দিন-তারিখ উল্লেখ না থাকলেও হামলার সময় সকাল ৬-৭টা অথবা সন্ধ্যা ৭-১০টায় হতে পারে বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

এর আগে শনিবার পল্টন এলাকা থেকে একটি বোমা সদৃশ বস্তু উদ্ধার করা হয়। তার আগের দিন শুক্রবার পল্টনে একটি বোমা বিস্ফোরণের ঘটনাও ঘটে।