Fri. Sep 18th, 2020

বিশ্বনাথে প্রশাসনের অনুমতি ছাড়াই সরকারি গাছ বিক্রি!

বিশ্বনাথ প্রতিনিধি: সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার সদর ইউনিয়নের শাহ জালাল পূর্ব সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের হাজার টাকার গাছ অনুমতি ছাড়াই বিক্রির খবর পাওয়া গেছে। হঠাৎ স্কুলের গাছ কাটা নিয়ে এলাকার মানুষের মধ্যে রহস্য সৃষ্টি হয়েছে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সরেজমিনে দেখা গেছে, বিশ্বনাথ সদর ইউনিয়নের কুরয়া রোডস্থ সেনারগাওঁ এলাকায় ‘শাহ জালাল পূর্ব সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাটে সারিসারি গাছ পেল রাখাসহ গাটা চলছে।

প্রশাসনের অনুমতি ছাড়াই প্রকাশ্যে স্কুলের বড় বড় রেন্টি গাছ গোপনে বিক্র চলছে স্থানীয় এমন সূত্রে সরজমিনে তা সত্যতা পাওয়া যায়। স্থানীয় এলাকার অনেকেই বলেন, প্রশাসনের অনুমতি আছে কিনা আমরা জানি না। আর গাছ কাটার জন্য আমরা কিছুই বলতে পারবো না, যারা গাছ কাটছেন, তারা স্কুল কমিটির লোক। গাছ কাটার অভিযোগের বিষয়ে স্থানীয় অনেকেই বলেন, আমরা জানতে পেরেছি, উপজেলা প্রশাসনে এবিষয়ে মৌখিকভাবে জানানো হয়েছে, কিন্তু গাছ কাটার বিষয়টি জানার পরও গাছ কাটা বন্ধ হয়নি বা থেমে থাকেনি এ নিয়েই ধ্রুম্যজাল সৃষ্টি হয়েছে। গাছ কাটার বিষয়টি নিয়ে বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি লাল মিয়ার ০১৭২৭০২৪৮৭০ নাম্বারে কল দিলে তিনি ফোন রিসিভ করেরনি। তবে স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বার জহুর আলী স্কুলের গাছ কাটার অনুমতির বিষয়ে অবগত নন, তবে বিদ্যালয়ের কাজের জন্য গাছগুলো কাটা হচ্ছে বলে তিনি শুনেছেন।

এব্যপারে স্কুলের প্রধান শিক্ষক বরুণ দাস বলেন, স্কুলের কাজের জন্য গাছগুলো কাটা হয়েছে, কিন্তু এখনও বিক্রি করা হয়নি। তবে প্রশাসনের অনুমতি না নেওয়ার কথা তিনি স্বীকার করেন, মৌখিকভাবে প্রশাসনকে জানানো হয়েছে, প্রশাসনের মাধ্যমে গাছ গুলো বিক্র করা হয়ে বলে তিনি দাবি করেন। স্থানীয় একজন স্কুলের দুইটি গাছ ৭ হাজার টাকার বিনিময়ে ক্রয় করার কথা স্বীকার করেছেন।

জানতে চাইলে উপজেলা ইউএনও বর্ণালি পাল বলেন, স্কুলের গাছ কাটার বিষয়ে তিনি কিছুই জানেন না, তিনি কোন অনুমতি দেননি।