Sat. Oct 31st, 2020

মন্ত্রিসভায় রদবদলের সম্ভাবনা, বাদ যেতে পারেন কয়েকজন মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রী

ডেইলি বিডি নিউজঃ মন্ত্রিসভায় রদবদলের সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। আগামী সপ্তাহের মধ্যে এই রদবদল হতে পারে। তবে আজ বৃহস্পতিবারও হতে পারে বলে কেউ কেউ বলেছেন। সে ক্ষেত্রে কয়েকজন মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রী বাদ পড়তে পারেন। সেই সঙ্গে নতুন কয়েকজন যোগ হতে পারেন। আওয়ামী লীগের প্রবীণ কয়েকজন নেতাও মন্ত্রিসভায় যুক্ত হতে পারেন বলে গুঞ্জন রয়েছে।

সংশ্নিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে মন্ত্রিসভায় রদবদল বিষয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ এরই মধ্যে প্রয়োজনীয় প্রস্তুতিও নিতে শুরু করেছে। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সরকার গঠন ও রাষ্ট্রাচার শাখা থেকে এই প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। সবুজ সংকেত পেয়ে নতুনদের তালিকা সংগ্রহ ও প্রত্যেকের শপথের জন্য স্বতন্ত্র ফোল্ডারও প্রস্তুত করেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। যাদের মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী হওয়ার

সম্ভাবনা রয়েছে, তাদের সম্পর্কে মাঠপর্যায়ের গোয়েন্দা রিপোর্ট প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে জমা হয়েছে।

জানা গেছে, এই দফার রদবদলে দু-তিনটি মন্ত্রণালয়ের পাশাপাশি নতুন মুখ অন্তর্ভুক্তি ও কয়েকজন বাদ পড়তে পারেন। এ ছাড়া দু-একটি মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রতিমন্ত্রী বা উপমন্ত্রীর পদোন্নতি হওয়ার গুঞ্জনও রয়েছে।

সূত্র আরও জানিয়েছে, গত সপ্তাহে মন্ত্রিসভায় নতুন মুখ অন্তর্ভুক্তির কথা থাকলেও সংসদ অধিবেশনের কারণে সেটা হয়নি। সবদিক বিবেচনায় নিয়েই প্রধানমন্ত্রী এই রদবদলের জন্য যে কোনো দিন বেছে নিতে পারেন। সুনির্দিষ্টভাবে তারিখ এখনও নির্ধারিত হয়নি।

এর আগে মন্ত্রিসভার রদবদল নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরে সরকার ও ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের বিভিন্ন পর্যায়ে আলোচনা ও গুঞ্জন চলে আসছে। করোনার প্রাদুর্ভাবের মধ্যে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহর মৃত্যুর পর সেই আলোচনা আরও জোরালো হয়। তবে করোনা পরিস্থিতি অস্বাভাবিক পর্যায়ে চলে যাওয়ায় বিষয়টি আর এগোয়নি। শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহর মৃত্যুর পর থেকে ধর্ম মন্ত্রণালয়টি শূন্য রয়েছে। এই মন্ত্রণালয়ে এখন পর্যন্ত কাউকে দায়িত্ব দেওয়া হয়নি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পালন করে আসছেন। তবে শিগগিরই মন্ত্রিসভায় নতুন কাউকে যুক্ত করে এই মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বা প্রতিমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব দেওয়ার কথাও আলোচনায় রয়েছে।

এ বিষয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সম্প্রতি এক অনলাইন সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, মন্ত্রিসভায় রদবদল বা নিয়োগ দেওয়ার সম্পূর্ণ এখতিয়ার প্রধানমন্ত্রীর। কোনো সিদ্ধান্ত হয়েছে কিনা সেটি তার জানা নেই।

২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিরঙ্কুশ জয়ের পর শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ৭ জানুয়ারি নতুন মন্ত্রিসভার সদস্যরা শপথ নেন। দলের হেভিওয়েট নেতাদের সবাইকে বাদ দিয়ে তার নেতৃত্বাধীন নতুন মন্ত্রিসভায় ২৪ জন মন্ত্রী, ১৮ জন প্রতিমন্ত্রী ও তিনজন উপমন্ত্রী নিয়ে ৪৬ সদস্যের মন্ত্রিসভার যাত্রা শুরু হয়।

এরপর গত বছর ১৯ মে মন্ত্রিসভায় রদবদল আনা হয়। একই বছর ১৩ জুলাই মন্ত্রিসভার সম্প্রসারণ হয়। ওই দিন প্রতিমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেন সংসদ সদস্য ও আওয়ামী লীগ নেত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা। আর প্রতিমন্ত্রী ইমরান আহমদ পদোন্নতি পেয়ে পূর্ণমন্ত্রী হন। তারপর মন্ত্রিসভায় আর নতুন কেউ যুক্ত হননি বা কোনো রদবদলও হয়নি।