Fri. Oct 30th, 2020

অপরাধী পুলিশের চেয়ে বড় মাস্তান হতে পারে না: এএসপি মাহমুদুল হাসান চৌধুরী

জগন্নাথপুর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি::
সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর সার্কেল এএসপি মাহমুদুল হাসান চৌধুরী বলেছেন, অপরাধী যত বড় প্রভাবশালী ব্যক্তি হোক না কেন আইনের উর্ধে কেউ নয়। অপরাধ করে কেউই পার পাবে না। তাকে পুলিশের হাতে ধরা পড়তেই হবে। অপরাধী প্রভাবশালী হতে পারে তবে পুলিশের চেয়ে বড় মাস্তান হতে পারে না। বর্তমানে দেশ সচেতন, দেশের নাগরিক সচেতন, তাই অপরাধীকে ধরিয়ে দিতে পুলিশকে সহযোগিতা করার জন্য আপনাদের প্রতি আহবান জানাচ্ছি।

তিনি অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনাদের সন্তান কোথায় কি করে, ঠিক মত পড়া-লেখা করছে কি না তা আপনাকে খোঁজ রাখতে হবে। শুধুমাত্র আপনারাই পারেন আপনার সন্তানকে সঠিক পথ দেখাতে। তাই সবাইকে সন্তানদের প্রতি দায়িত্বশীল হতে হবে।
বাংলাদেশ পুলিশের উদ্যোগে সারাদেশের ন্যায় শনিবার সকাল ১০টায় সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর থানা পুলিশের ৬নং রানীগঞ্জ ইউনিয়ন বিট পুলিশিং এর আয়োজন নারী নির্যাতন বিরোধী সমাবেশে জগন্নাথপুর-দক্ষিণ সুনামগঞ্জ (জগন্নাথপুর সার্কেল) এএসপি মাহমুদুল হাসান চৌধুরী সভাপতির বক্তব্যে উপরোক্ত কথা গুলো বলেন। পুলিশ উপ পরিদর্শক (এসআই) ও রানীগঞ্জ বিট পুলিশিং কর্মকর্তা ফিরোজ মিয়ার পরিচালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, রানীগঞ্জ কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ আলাউর রহমান ঠাকুর। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন রানীগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি হাজী মো. সুন্দর আলী, সাবেক চেয়ারম্যান মজলুল হক, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক ডা: মো. ছদরুল ইসলাম।

সভায় অনান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন রানীগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক রফিকুল ইসলাম আকন্দ, সিনিয়র শিক্ষক মন্তাজ মিয়া, ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য রোকসানা বেগম, পরিষদের সদস্য ইছরাক আলী, তেরা মিয়া তেরাব, বাজার ব্যবসায়ী মন্তোষ দেব মলয়, উপজেলা যুবলীগের সহ সভাপতি সালেহ আহমদ, রানীগঞ্জ ইউনিয়ন জাতীয় শ্রমিক লীগের সভাপতি সাফি মিয়া তালুকদার, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা শাহানুর আহমদ শানুর, যুবলীগ নেতা বাদল দাঁশ, রানীগঞ্জ কলেজের প্রভাষক মিছলুর রহমান, সাংবাদিক গোলাম সারোয়ার, রানীগঞ্জ ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক রিপন আহমদ, রানীগঞ্জ কলেজের শিক্ষার্থী মাসুমা আক্তার, রানীগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী তমা চক্রবর্তী প্রমুখ।

এ সময় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মিনার আহমদ, আওয়ামী লীগ নেতা আনোয়ার হোসেন, রানীগঞ্জ কলেজের প্রভাষক ইমরান আহমদ, জগন্নাথপুর থানার এএসআই শহিদুল ইসলাম, সার্কেল অফিসের মোস্তাফা আহমদ, রানীগঞ্জ ইউনিয়নের গ্রাম আদালতের সহকারী শরিফুল ইসলাম, আওয়ামী লীগ নেতা জিয়াউর রহমান, থানা কনেসন্টেবল বিশ^জিৎ দাশ, রানীগঞ্জ ইউনিয়ন যুবলীগের আহবায়ক কমিটির সদস্য গোলাম রব্বানী, সাংবাদিক জুয়েল আহমদ, সুজাত আলী, ছাত্রলীগ নেতা রুয়েল আহমদ, হৃদয় মিয়া, জ¦গদিশ দাশ, আব্দুর রহমান সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্টানের শিক্ষক, অভিভাবক, শিক্ষার্থী সহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন। এদিকে উপজেলার পৌরসভা সহ ৮টি ইউনিয়নে এক সাথে নারী নির্যাতন বিরোধী সমাবেশ অনুষ্টিত হয়। এ সময় থানার পুলিশ কর্মকর্তারা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

সভায় বক্তরা বলেন, নারীদের সুরক্ষার জন্য আইন ও নীতি প্রণয়ন করা হয়েছে। দেশের মোট জনগোষ্ঠীর অর্ধেক নারী। তাদের কথা গুরুত্বের সঙ্গে না ভেবে সামনে এগোনো যাবে না। নারী-পুরুষ সবাই সমান। আসুন সবাই নারীর প্রতি সদয় হই। বক্তরা আরো বলেন, রানীগঞ্জ বাজারের পাশে রানীনগর গ্রামে লাইন্সেকৃত মদের পাট্রা রয়েছে। মদের পাট্রায় সকলের কাছে মদ বিক্রয় করতেছে। যার কারনে দিন দিন অপরাধ বৃদ্ধি পাচ্ছে। দ্রুত সময়ে ভিতরে মদের পাট্রাটি বন্ধের জন্য দাবি তুলেন।