Sun. Nov 29th, 2020

গণমাধ্যম কর্মীরাই করোনাকালে সঠিক দায়িত্ব পালন করেছেন: পিআইবি মহাপরিচালক

ডেইলি বিডি নিউজঃ গণমাধ্যম কর্মীরাই করোনাকালে সঠিক দায়িত্ব পালন করেছেন। সাংবাদিকদের কাজ দিন দিন কঠিন হচ্ছে। একাত্তরের স্মৃতি নিয়ে সাংবাদিকদের আরও কাজ করতে হবে। মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের খোঁজ খবর নিতে হবে। নিহত মুক্তিযোদ্ধাদের স্মৃতি সংরক্ষণের জন্য অনুসন্ধানী প্রতিবেদন করতে হবে। তিনি বলেন অনুসন্ধানী প্রতিবেদন তৈরি করা সাংবাদিকদের জন্য একটি বড় চ্যালেঞ্জ। অনেক দিনের লুকিয়ে থাকা ঘটনার তথ্য উপাত্ত খুঁজে আনতে এটিতে বেশ সময় লাগে। ঝুঁকিও আছে অনেক।

তাই দেশ ও সমাজের কথা বিবেচনা করে অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা বাড়াতে হবে। মহাপরিচালক বলেন, সারা দেশে নামধারী সাংবাদিকদের কারণে মূলধারার সাংবাদিকদের সম্মানহানি হচ্ছে। অনেক আছে লিখতে পারে না, তারপরও বাংলা ইংলিশ পত্রিকা বের করে সুবিধা নেয়। অনেক বড় বড় সাংবাদিক কিন্তু নিউজ করেন না। তিনি বলেন, পেশাদার অনেক সাংবাদিকদের করোনাকালে প্রণোদনা দেয়া হয়েছে। সময়ের ব্যবধানে সবাইকে প্রণোদনা দেয়া হবে। এ কাজ অব্যাহত আছে। বাংলাদেশ প্রেস ইন্সটিটিউটের (পিআইবি) উদ্যোগে মৌলভীবাজার প্রেসক্লাবে আয়োজিত ৩ দিনব্যাপী অনুসন্ধানীমূলক রিপোর্টিংয়ের সমাপনী অনুষ্ঠানে বুধবার সন্ধ্যায় সভাপ্রধানের বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন বাংলাদেশ প্রেস ইন্সটিটিউটের (পিআইবি) মহাপরিচালক জাফর ওয়াজেদ। পিআইবি’র প্রশিক্ষক শাহ আলম সৈকত এর পরিচালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন মৌলভীবাজারের জেলা প্রশাসক মীর নাহিদ আহসান। বক্তব্য রাখেন প্রেসক্লাবের সভাপতি প্রবীণ সাংবাদিক এম এ সালাম, সিনিয়র সাংবাদিক বকসী ইকবাল আহমদ, সরওয়ার আহমদ, বকসী মিছবাউর রহমান, প্রেসক্লাব সাধারণ সম্পাদক পান্না দত্ত। প্রশিক্ষণটি শুরু হয় ১৬ই নভেম্বর সোমবার সকাল ৯টায় মৌলভীবাজার প্রেসক্লাব মিলনায়তনে। প্রশিক্ষক হিসেবে দ্বায়িত্ব পালন করেন নিউইয়র্ক টাইমস এর স্ট্রিংগার ও বৈশাখী টেলিভিশনের পরিকল্পনা পরামর্শক জুলফিকার আলী মানিক, যমুনা টেলিভিশনের বিশেষ প্রতিনিধি মাহফুজ মিশু। পরে পরে জেলা প্রশাসক ও মহাপরিচালক প্রশিক্ষণার্থীদের হাতে সনদ তোলে দেন। তিনদিনব্যাপী এ প্রশিক্ষণে জেলার ৩৫ জন সাংবাদিক অংশ নেন। জেলার বিভিন্ন উপজেলার সাংবাদিকদের নিয়ে আরও ২টি প্রশিক্ষণ চলবে ২৪শে নভেম্বর পর্যন্ত।