Wed. Mar 3rd, 2021

বডি ওর্ন ক্যামেরার’ কাজ কী?

ডেইলি বিডি নিউজঃ সিলেট মহানগরীর বিভিন্ন সড়কে প্রায়ই যানবাহন চালক,পথচারী ও ট্রাফিক পুলিশের মধ্যে অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে। পথচারী ও যানবাহন চালকরা আইন অমান্য করে থাকেন।

আবার কখনও ট্রাফিক পুলিশের সদস্যদের অস্বাভাবিক আচরণের অভিযোগ ওঠে। এসব ক্ষেত্রে যাত্রী বা চালকের অভিযোগ থাকে পুলিশের বিরুদ্ধে। আবার পুলিশের অভিযোগ থাকে যাত্রী বা চালকের বিরুদ্ধে।

অনেক সময় রাস্তায় দুর্ঘটনার সঠিক কারণও উদঘাটন করা যায় না। তাই সবদিক বিবেচনায় সিলেট মহানগর পুলিশের ট্রাফিক বিভাগ এবার প্রবেশ করলো বডি ওর্ন ক্যামেরা’জগতে।

যে ক্যামেরাগুলো দায়িত্বরত পুলিশের বুকে কিংবা কপালে লাগানো থাকবে বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট সূত্র।

প্রযুক্তিগতভাবে আরেক ধাপ এগিয়ে গেলো সিলেট মহানগর পুলিশের (এসএমপি) ট্রাফিক বিভাগ। এ বিভাগের ১০ সার্জেন্ট পেয়েছেন ‘বডি ওর্ন ক্যামেরা’। মঙ্গলবার ট্রাফিক পক্ষের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তাদেরকে বিশেষ এই ক্যামেরা প্রদান করা হয়। সিলেটে প্রথমবারের মতো মঙ্গলবার এই ক্যামেরা পেলেন ১০ ট্রাফিক সার্জেন্ট।

পুলিশ জানায়, সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ ট্রাফিক বিভাগে এই প্রথম মাঠপর্যায়ে কর্মরত সার্জেন্টদের কাজের মান বৃদ্ধি, স্বচ্ছতা ও জবাদিহিতা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টগুলোতে দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে ১০জন সার্জনকে Body worn camera (বডি ওর্ন ক্যামেরা) প্রদান করা হয়েছে। এই বিশেষ ক্যামেরাগুলোর মাধ্যমে সেবা প্রদানকালীন সময়ের ভিডিও,স্থির চিত্র ও ভয়েস রেকর্ড সংগ্রহ করা যাবে।

এছাড়াও বডি ওর্ন ক্যামেরার মাধ্যমে কর্মক্ষেত্রে সরাসরি সার্জেন্টের কার্যক্রম মনিটরিং করবে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। এতে ট্রাফিক পুলিশের সেবার মান বাড়বে এবং এতে উপকৃত হবে সাধারণ জনগণ।

উল্লেখ্য,ট্রাফিক সিগন্যাল অমান্যকারী যানবাহন ও চালক শনাক্ত,দুর্ঘটনা,কর্মরত ট্রাফিক পুলিশের কার্যক্রমে স্বচ্ছতা এবং ট্রাফিক পুলিশের সমন্বয় বাড়াতে সড়কে দায়িত্বরত পুলিশের অনিয়ম প্রতিরোধ ও তল্লাশি কার্যক্রম পর্যবেক্ষণে দেশে ২০১৪ সাল থেকে বডি ওর্ন ক্যামেরা চালু করা হলেও সিলেটে এই প্রথমবারের মতো ট্রাফিক পুলিশে যুক্ত হলো এসব বিশেষ ক্যামেরা।