Sat. Apr 10th, 2021

কুলাউড়ায় খাল খননে অনিয়মের অভিযোগ!

নিজস্ব প্রতিবেদক, কুলাউড়া:: কুলাউড়া উপজেলার জয়চন্ডী ইউনিয়নে হতদরিদ্রের কর্মসৃজন প্রকল্পের আওতায় ‘দানাপুর ভটরমার খাড়া’ এলজিইডি রাস্তা থেকে দক্ষিণমুখী খাল খননের কাজটি করা হচ্ছে যান্ত্রিক এক্সকেভেটর দিয়ে। এ ছাড়াও কিছু অনিয়ম ও গাছপালার ক্ষয়ক্ষতির অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ বিষয়ে দানাপুর গ্রামের বাসিন্দা খালিক মিয়া নামক এক ব্যক্তি কুলাউড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে লিখিত অভিযাগ করেছেন।

সরেজমিন ঘটনাস্থলে গেলে স্থানীয় লোকজন ও খালিক মিয়ার লিখিত অভিযোগ থেকে জানা যায়, হতদরিদ্রের কর্মসৃজন প্রকল্পের আওতায় ‘দানাপুর ভটরমার খাড়া’ খাল খনন প্রকল্পে ২ লাখ ৪০ হাজার টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়। প্রকল্পের সভাপতি ও জয়চন্ডী ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের মেম্বার রমজান আলী কাজটি বাস্তবায়ন করছেন। যদিও কাজটি বাস্তবায়নে এলাকার হতদরিদ্র লোকজন দিয়ে বাস্তবায়ন করার কথা কিন্তু প্রকল্পের সভাপতি মাটি কাটার এক্সকেভেটর যন্ত্র দিয়ে কাজ সম্পাদন করছেন। ৮ দিনে কাজ সম্পন্ন করতে সর্বোচ্চ ব্যয় হবে ১২ হাজার টাকা করে প্রতিদিন অনুসারে মোট ৯৬ হাজার টাকা। বাকি টাকাগুলো তাহলে কোন খাতে ব্যয় হবে? এটা স্থানীয় লোকজনের প্রশ্ন। তাছাড়া  মেম্বার স্থানীয় এক ব্যক্তির কাছ থেকে আর্থিক বিশেষ সুবিধাও নিয়েছেন।

অভিযোগকারী খালিক মিয়ার অভিযোগ, খালের পার্শ্ববর্তী বাসিন্দা ও ভূমির মালিক হওয়ায় তার গাছপালা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। তাছাড়া খাল খননের নামে তার মৌরসী সম্পত্তির ওপর দিয়ে রাস্তা তৈরির পাঁয়তারা চলছে। তিনি সরেজমিন পরিদর্শনপূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান।

অভিযুক্ত মেম্বার রমজান আলী জানান, এলাকাবাসীর দীর্ঘদিনের দাবি এ খাল খনন করে দু’পাশ দিয়ে একটি রাস্তা নির্মাণের। এলাকাবাসীর দাবির পরিপ্রেক্ষিতে খাল খনন কাজ সুষ্ঠুভাবে চলছে। যারা অভিযোগ করেছে তারাই গাছগুলো কেটে নিয়েছে।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শিমুল আলী জানান, বিষয়টি সরেজমিন তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এ ব্যাপারে কুলাউড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার এটিএম ফরহাদ চৌধুরী জানান, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি খতিয়ে দেখার জন্য প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তাকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।