Main Menu

বিশ্বনাথ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দীর্ঘ সারি : রোগীদের ভোগান্তি

নিজস্ব প্রতিবেদক :: ৩১ আগস্ট মঙ্গলবার ঘটির কাটা ৯.৫০মিনিট। একজন সাংবাদিকের গর্ভবতী স্ত্রীকে নিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কাদিপুর হাসপাতালে। হাসপাতালের গেইট,দরজা-জানালা সবই খোলা। শুধু নেই চিকিৎসক ও চিকিৎসার সাথে সংশ্লিষ্টরা। হাসপাতালের নিচ তলায় লাইনে দাঁড়িয়ে আছেন গর্ভবর্তী মহিলা সহ অনেক নারী পুরুষ ও শিশুরা। এদিকে করোনার টিকা দিতে আসা ২ থেকে আড়াইশ লোক সকাল ৮টা থেকে হাসপাতালে এদিক অধিক ছোটাছুটি করছেন। ঘন্টা খানেক পর সৌভাগ্যক্রমে মোবাইল ফোনে কথা হয় এই হাসপাতালের একাউটেন্ট আব্দুল জলিলের সাথে। তিনি জানালের প্রতিদিন বিলম্বে যেতে হয়। যে কারনে পরদির আসতে সকলেরই দেরি হয়।

তাছাড়া ওয়ার্ডে ভর্তি থাকা রোগীদে দুধ,ডিম,কলা ইত্যাদি দেয়ার কথা। তার পর কথা হয়,স্বাস্থ্য কর্মকর্তা আব্দুর রহমানের সাথে। তিনি জানান,সকাল সাড়ে ৮টায় ডিউটিতে আসার কথা। কিন্তু আমি ছুটিতে থাকায় হয়তো কিছু বিলম্ব হয়েছে। এমন চিত্র এই হাসপাতালের একদিনের নয়,প্রতিদিনই চিকিৎসা নিতে আসা ভুক্তভোগী রোগীদের।

হাসপাতালে ডাক্তার আছে,ওষধ আছে,নেই শুধু চিকিৎসা। হাসপাতালের একটি ওয়ার্ডে শিশুসহ ১০জন ভর্তি আছেন। তাদের অভিযোগ,ওয়ার্ডের কর্তরত নার্স খুব খারাপ ব্যবহার করে থাকেন। ওয়ার্ড পরিস্কার না থাকায় মারাত্বক র্দগন্ধ। নিম্ন মানের খাবার দেয়া হয়। কিন্তু টিকাদার উচ্চমানের খাবারে মুল্য নিয়ে থাকেন। এ হাসপাতালের অনিয়ম দূর্নীতি নিয়ে পত্র পত্রিকায় লেখালেখিও কম হয়নি। কিন্তু অবস্থার কোন পরিবর্তন হচ্ছেনা। চিকিৎসা হয়না এই হাসপাতালে ধনীরা চলে যান ক্লিনিকে। কিন্তু গরিবেরত যাওয়ার কোন জায়গা নেই। ঘুরে ফিরেই এই হাসপাতালে আসতে হয় জীবন বাঁচাতে। বড় সমস্যা ডেলিভারি মহিলাদের নিয়ে। এখানে ডেলিভারি করার মত ব্যবস্থা ও নির্দেশ থাকলেও ডেলিভারি হয় খুব কম। মানুষের আস্তা না থাকায় চলে যেতে হয় ক্লিনিকে। আবার অনেক গরিব গর্ভবতী মহিলা ইচ্চা করেই আল্লাহর উপর ভরসা করে বাড়িতে সন্তান প্রসব করেন। এ হাসপাতালে সবসময় চিকিৎসকরা থাকেন না। প্রাইভেট চেম্বার ও ক্লিনিক নিয়ে ব্যস্ত। আয়া,পিয়ন,নার্স ও ব্রাদার চিকিৎসকের ভুমিকা পালন করেন। সামান্য কাটা চিরা নিয়ে রোগী আসলেই রেফার করে দেয়া হয় সিলেট ওসমানী হাসপাতালে। না হয় পরামর্শ দেয়া হয় ক্লিনিকে ভর্তির জন্য। হাসপাতালটি এই অঞ্চলের অবহেলিত জনগনের চিকিৎসা সেবার জন্য নির্মিত হলেও মানুষ কাংখিত সেবা পাচ্ছেনা।






Related News

Comments are Closed