Main Menu

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গোপালগঞ্জের মতো সুনামগঞ্জের মানুষজনকে ভালবাসেনঃ পরিকল্পনামন্ত্রী মান্নান

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ সুনামগঞ্জের শান্তিগঞ্জ উপজেলায় দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত হয়ে গেল গ্রামবাংলার ঐতিহ্যবাহি নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা। এতে সিলেট বিভাগের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলা থেকে ২২টি নৌকা অংশগ্রহন করেন। এতে পাখিমারা হাওরের দু’পাড়ে লাখো মানুষের পদচারনায় মুখরিত ছিল।

বৃহস্পতিবার সকাল থেকে উপজেলার পূর্ব বীরগাওঁ ইউনিয়নের পাখিমারা হাওরে এ নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। পূর্ব বীরগাঁও ইউনিয়নবাসীর আয়োজনে পাখিমারা হাওরে ভাসমান নৌকায় এক সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। পূর্ববীরগাওঁ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলূগের নৌকা প্রতিকের মনোনয়ন প্রত্যাশী রাইজুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও শান্তিগঞ্জ উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান প্রভাষক নুর হোসেনের সঞ্চালনায় এতে প্রধান অতিথি হিসেবে নৌকা বাইচের উদ্বোধন করেন সুনামগঞ্জ-৩(শান্তিগঞ্জ ও জগন্নাথপুর) আসনের সংসদ সদস্য ও পরিকল্পনামন্ত্রী আলহাজ্ব এম এ মান্নান।

এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব নুরুল হুদা মুকুট,অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক(সার্বিক) আল ইমরান(রুহুল ইসলাম),অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো.হায়াতুন নবী সায়েম,উপজেলা চেয়ারম্যান মো.ফারুক আহমদ,উপজেলা নির্বাহী অফিসার আনোয়ারুজ্জান,মন্ত্রীর ব্যক্তিগত রাজনৈতিক সচিব মো.হাসনাত হোসাইন,জেলা যুবলীগের সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক আসাদুজ্জামান সেন্টু,মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান দুলন রানী তালুকদার,জগন্নাথপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মো.আকমল হোসেন,সাধারন সম্পাদক রেজাউল করিম রাজু,শান্তিগঞ্জ থানার ওসি কাজি মোক্তাদির হোসেন চৌধুরী,শিমুলবাক ইউপি চেয়ারম্যান মো.মিজানুর রহমান জিতু মিয়া,পশ্চিম বীরগাও ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের নৌকা প্রতিকের মনোনয়ন প্রত্যাশী এ্যাডভোকেট দেবাংশু শেখর দাস,জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুল ইসলাম শিপন প্রমুখ।

প্রতিযোগিতায় দুটি নৌকা প্রথম স্থান অধিকারী করেন । বিজয়ীরা হলেন শান্তিগঞ্জ উপজেলার দরগাপাশা ইউপি চেয়ারম্যান মো.মনির উদ্দীনের সান্দাউক নৌকা ও হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলার ইনাতগঞ্জের গাছ নৌকা প্রথম স্থান অধিকার করে। পরে বিজয়ী দলের হাতে দুটি সোনার নৌকা ও সোনার বৈঠা তুলে দেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে পরিকল্পনামন্ত্রী আলহাজ্ব এম এ মান্নান এমপি বলেছেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এক অজপাড়া গায়ে জন্মগ্রহন করেছিলেন বলেই তিনি সব সময় গ্রাম ও গ্রামের মানুষজনকে ভালবাসতেন। আজ তিনি নেই তাকে ১৯৭৫ সালেই ১৫ই আগষ্ট স্বাধীনতা বিরোধী ও কিছু বিপদগামি সেনা অফিসাররা ক্ষমতার লোভে তাকে স্বপরিবারে হত্যা করেছিল। তার তার শত জন্মবার্ষিকীতে জাতির পিতার সুযোগ্য উত্তরসূরী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ আজ বিশে^ উন্নত দেশে পরিণত হয়েছে। আজ গ্রামকে শহরে পরিণত করার লক্ষ্যে শেখ হাসিনা গ্রামবাংলার প্রাচীনতম ঐহিত্য নৌকা বাইচ মানুষের বিনোদনের জন্য উন্মোক্ত করে দিয়েছে। তিনি এই নৌকা বাইচে লাখো মানুষের উপস্থিতিতে তিনি প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে উপস্থিত সবাইকে শুভেচ্ছা ও ধন্যবাদ জানান। তিনি এই মুজিববর্ষে সবাইকে শেখ হাসিনার সরকারের পাশে থেকে উন্নয়নের সুফলে অংশিদারীত্বের আহবান জানান।






Related News

Comments are Closed