Main Menu

তবে কি এবার নারী মেয়র পাচ্ছে সিলেট?

ডেইলি বিডি নিউজঃ সুন্দর মুখের জয়জয়কার সর্বযুগে। সবখানে। তাই তো যেখানে রাষ্ট্রপতি, রাজা থেকে দূত, সম্রাট থেকে পোপ, বর্বর থেকে একনায়ক- সবাই পুরুষ। কিন্তু ব্যতিক্রম ঘটতে যাচ্ছে সিলেটে। বাংলাদেশের আধ্যাত্মিক রাজধানী হিসেবে খ্যাত সিলেটে হয়তোবা এবার ঘটতে যাচ্ছে সম্পূর্ণ ব্যতিক্রম কিছু। কারন এই সিলেট হয়তোবা এবার পেতে যাচ্ছে তাদের প্রথম নারী মেয়র। এমন ঘটনাকে ব্যতিক্রম হিসেবে দেখা হচ্ছে।

হালকা সোনালি চুল ও সুন্দর মুখশ্রীর তাসমিয়াহ বিনতে স্বর্ণা, সিলেটে নারী রাজনীতির এক অন্যতম দিকপাল। সিলেটের তরুনীদের রাজনৈতিক রোল মডেল তথা এক আদর্শ পথ প্রদর্শক হিসেবে সর্বমহলে শ্রদ্ধার সাথে গৃহীত একটি নাম। সম্প্রতি এক ফেইসবুকে স্ট্যাটাসে তিনি নিজেকে আগামী সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের একজন প্রাথী হিসেবে ঘোষণা করেন। তিনি লেখেন- আমি আগামী সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী। সিলেট শহর কে স্বপ্নের নগরী গড়তে চাই।

উল্লেখ্য ২০০৩ সাল থেকে তিনি যুব মহিলা লীগের রাজনীতির সাথ যুক্ত। এবং বিগত চারদলীয় জোট সরকার বিরোধী আন্দোলনে সিলেটের রাজপথে তার সক্রিয় অবস্থান ছিলো। আর এই সক্রিয় অবস্থানের জন্যই তাকে বার বার কারাবরন করতে হয়েছে।

সাবেক অর্থমন্ত্রী এস এম কিবরিয়া হত্যার প্রতিবাদে সিলেটের রাজপথে মেয়েদের নিয়ে সর্বপ্রথম মিছিল করেছিলেন তাসমিয়াহ বিনতে স্বর্ণা। আর সে মিছিল জিন্দাবাজার থেকে কোটপয়েন্ট যাবার পথে গ্রেপ্তার হয়ে প্রায় ১১ দিন কারাবরন করেছিলেন তিনি। প্রায় ৯দিন কারা অভ্যন্তরে থাকার পরেও যখন তাত জামিন হচ্ছিলো না তখন তৎকালীন বিরোধী দলীয় নেত্রী এবং আজকের প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা তার জন্য জরুরি সংবাদ সম্মেলন করেছিলেন। এবং সংবাদ সম্মেলনের পরের দিনই জামিনে মুক্তি পেয়েছিলেন তিনি।

সিলেটের রাজপথের এক আপোষহীন নেত্রী
সিলেটের রাজপথের এক আপোষহীন নেত্রী তাসমিয়াহ বিনতে স্বর্ণা

এছাড়া অন্য আরেক একটি হরতালে গ্রেপ্তার হয়ে জেল কেটেছেন বেশ কয়েকদিন। চার দলীয় জোট সরকারের সময় বার বার জেল কেটেছেন তিনি। আল হামরা শপিং সিটি ভাঙ্গার মামলায় সম্পূর্ণ মিথ্যেভাবে তাকে এক নাম্বার আসামী করা হয়। যে মামলাটি সম্পূর্ণ রাজনৈতিক প্রতিহিংসামূলক একটি মামলা। যদিও গ্রেফতার কালে তাকে গাড়ি ভাংচুর মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়। এবং এর স্বপক্ষে প্রমান উপস্থাপনে ব্যথ হয় আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী।

সিলেটে গুলশান হোটেলে গ্রেনেড হামলা ও সাবেক এমপি জেবুন্নেসার উপর গ্রেনেড হামলার প্রতিবাদে সিলেটের শহীদ মিনারে প্রথম নারী সমাবেশ করেছিলেন তাসমিয়াহ বিনতে স্বর্ণা। যাতে উপস্থিত ছিলেন আজকের অর্থমন্ত্রী আবুল মাল সহ সিলেটের বর্তমানের প্রায় সকল এম.পি মন্ত্রীগন।

এক কথায় সিলেটের নারী জাগরনের দিকপাল তাসমিয়াহ বিনতে স্বর্ণা শুধুমাত্র আওয়ামীলীগ করার অপরাধে জেলে জুলুমের শিকার হয়েছেন বারবার, যা সিলেটের অন্য কোন নারী নেত্রীকে করতে হয় নি।

চারদলীয় জোট সরকারের আমলে শিকার হয়েছেন জেল জুলুমের
কিবরিয়া হত্যার প্রতিবাদে মিছিল বের করলে গ্রেফতার হোন তাসমিয়াহ বিনতে স্বর্ণা

ইতিমধ্যে তাসমিয়াহ বিনতে স্বর্ণা’র আগামী সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী এ ঘোষণায় সিলেটের রাজনীতির দাবার বোর্ডে বেশ তোলপাড় শুরু হয়েছে। কারন যেখানে দেশের প্রধানমন্ত্রী, বিরোধী দলীয় নেত্রী, সাবেক প্রধানমন্ত্রী সকলেই নারী, সেখানে একজন নারী হিসেবে তার সিটি নির্বাচনে নমিনেশন পাওয়া অনেকটা সহজ মনে হচ্ছে।

এ ব্যাপারে তার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন- সিলেটবাসী বিগত ২০০২ সাল থেকে দেখে এসেছেন বিভিন্ন জনের অধীনে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের পরিচালন ব্যবস্থা। তারা পরিবর্তনের আশায় বার বার নিজেদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করে আশাহত হয়েছেন। তাদের পাশে দাঁড়াতেই আমি নির্বাচনে অংশ নেয়ার ঘোষণা দিয়েছি। আমি শুধু একজন নারী হিসেবে নয় একজন দেশপ্রেমিক বাংলাদেশী নাগরিক হিসেবে আমার সিলেটের জনগণের সেবা করতে চাই। আমি চাই সেবার সংজ্ঞা পরিবর্তন করতে। দুর্নীতিমুক্ত, উন্নত এবং আধুনিক সিলেট উপহার দেয়াই হবে আমার লক্ষ্য।

উল্লেখ্য তাসমিয়াহ বিনতে স্বর্ণা বাংলাদেশ “যুবমহিলালীগ” সিলেট জেলার সাধারন সম্পাদক। তাই অতীত এবং বর্তমান রাজনৈতিক দিক বিবেচনায় তার প্রার্থিতা ঘোষণা অনেকটাই ইঙ্গিতপূর্ণ বলে বোদ্ধা মহল মনে করছেন।






Related News

Comments are Closed