Main Menu

দেশব্যাপী পরিবহন ধর্মঘটে চরম ভোগান্তি

ডেইলি বিডি নিউজঃ দুর্ঘটনার জন্য দায়ী চালকের সাজার প্রতিবাদে দেশব্যাপী পরিবহন মালিক-শ্রমিকদের অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘটে চরম ভোগান্তিতে পড়েছে মানুষ।

ধর্মঘটের ফলে চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, সিলেট, বরিশাল, রংপুর, ময়মনসিংহ, যশোর, নড়াইল, কুষ্টিয়া, বগুড়া, সিরাজগঞ্জ, দিনাজপুর, গাজীপুরসহ দেশের সব জেলায় যাত্রী ও পণ্যবাহী যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। আমাদের নিজস্ব প্রতিবেদক ও জেলা প্রতিনিধিরা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকায় চরম ভোগান্তিতে পড়েছে মানুষ। যশোরের বেনাপোল স্থলবন্দরে পণ্যবাহী কয়েক শ ট্রাক আটকে রয়েছে। সাতক্ষীরার ভোমরা স্থলবন্দরে ৫ শতাধিক পণ্যবাহী ট্রাক আটকা পড়ে আছে। এতে বিপাকে পড়েছেন ব্যবসায়ীরা। বাস চলাচল না করায় চরম দুর্ভোগে পড়েছেন মানুষ। সব চেয়ে বেশি বিপাকে পড়েছে চাকরিজীবী ও এসএসসি পরীক্ষার্থীরা। ইজিবাইকসহ অটোরিকশা চলাচলে বাঁধা দেওয়ায় অনেক স্থান থেকে শিক্ষার্থীদের হেটে পরীক্ষা কেন্দ্রে আসতে দেখা গেছে।

২০১১ সালে মানিকগঞ্জে তারেক মাসুদ ও মিশুক মুনীরসহ পাঁচজন নিহতের ঘটনায় বাসচালক জামির হোসেনের যাবজ্জীবন সাজার প্রতিবাদে রোববার খুলনা বিভাগের দশ জেলায় ধর্মঘট শুরু করে চালক-শ্রমিকরা।

সোমবার প্রশাসনের আশ্বাসে কর্মসূচি প্রত্যাহারের ঘোষণা এলেও পরে শ্রমিকনেতারা কর্মসূচি বহাল রাখার কথা বলেন। সাভারে ট্রাকচাপা দিয়ে এক নারীকে হত্যার দায়ে সোমবার ট্রাকচালক মীর হোসেনের ফাঁসির রায় দেওয়া হয় ঢাকার আদালতে। এরপর রাতে মতিঝিলে সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের এক বৈঠকে ধর্মঘটের এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

এর আগে সোমবার দুপুরে খুলনা সার্কিট হাউসের সম্মেলন কক্ষে বৈঠক শেষে খুলনার অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার মোহাম্মদ ফারুক হোসেন এবং খুলনা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন প্রেস ব্রিফিংয়ে সন্ধ্যা সাতটা থেকে বিভাগীয় পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহারের ঘোষণা দিলেও কেন্দ্রীয় কমিটি তা প্রত্যাখ্যান করে।

সিলেট জেলা পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি সেলিম আহমদ বলেন, কেন্দ্র থেকে ডাকা পরিবহন ধর্মঘটের সঙ্গে একাত্মতা জানানো হয়েছে।

চট্টগ্রাম আন্তঃজেলা বাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক কফিল উদ্দিন চৌধুরী বলেন, মহানগরীর পাহাড়তলী, অলঙ্কার, সিটি গেট, পতেঙ্গা, কাটগড়, বহদ্দার হাট, জেলার হাটহাজারী, নাজিরহাট, ফটিকছড়ি, সাতকানিয়া লোহাগাড়াসহ পুরো চট্টগ্রামে বিভাড়ে পরিবহন ধর্মঘটে যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে।

রংপুর মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি তজিুল ইসলাম মুকুল জানান, ধর্মঘটের বিষয়টি কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্ত। কেন্দ্র থেকে নির্দেশ এলে ধর্মঘট প্রত্যাহার করা হবে।

ভোমরা সিঅ্যান্ডএফের সেক্রেটারি মোস্তাফিজুর রহমান নাছিম জানান, ধর্মঘটের কারণে অচল হয়ে পড়েছে সাতক্ষীরার ভোমরা স্থলবন্দর। গত তিনদিনে শতকোটি টাকার ক্ষতির সম্মুখিন হয়েছেন আমদানি-রপ্তনিকারকরা।

 






Related News

Comments are Closed