Main Menu

ঈদের পর দেশে ফিরছেন খালেদা

ডেইলি বিডি নিউজঃ বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ঈদের পর দেশে ফিরবেন বলে জানিয়েছেন দলটির নেতারা। বিএনপি সূত্রে জানা গেছে, লন্ডনে বড় ছেলে তারেক রহমান ও তার পরিবারের সঙ্গেই আছেন খালেদা জিয়া। তিনি নিয়মিত চিকিৎসা নিচ্ছেন। সেখানেই এবারের কোরবানির ঈদ করবেন তিনি। ঈদের পর দেশে ফিরে তিনি নির্বাচনকালীন সহায়ক সরকারের রূপরেখা দেবেন।

জানতে চাইলে বিএনপির স্থায়ী কমিটির অন্যতম সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘উনি (খালেদা জিয়া) চিকিৎসার জন্য লন্ডনে গেছেন। অতি শিগগির চিকিৎসা শেষ করে তিনি দেশে ফিরে আসবেন। নির্বাচনকালীন সহায়ক সরকারের রূপরেখা দেয়ার কথা আছে। ফিরে এসে তিনি সে রূপরেখা দেবেন।’

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া চোখ ও পায়ের চিকিৎসার জন্য লন্ডন গেছেন। চিকিৎসা শেষ হলেই তিনি দেশে ফিরে আসবেন। তবে সময়টা নির্দিষ্ট বলতে পারছি না। সরকারি দলের মন্ত্রীরা বলেছেন খালেদা জিয়া মামলার ভয়ে দেশ ছেড়ে পালিয়ে গেছেন। এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিএনপি মহাসচিব বলেন, খালেদা জিয়া পূর্বেও দেশ ছেড়ে যাননি। এটা মিথ্যা অপপ্রচার। তিনি অচিরেই দেশে ফিরে আসবেন।

১৫ জুলাই চিকিৎসার জন্য লন্ডনে যান বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। সেখানে তিনি চোখ ও পায়ের চিকিৎসা নিচ্ছেন বলে বিএনপি নেতারা জানান। এর মধ্যে সচিবালয়ে এক অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘মামলার ভয়ে একজন অনেক আগে থেকেই লন্ডনে আছেন। আর দলের শীর্ষ নেত্রী মামলার ভয়েই লন্ডনে টেমস নদীর পাড়ে চলে গেছেন। তিনি আর ফিরে আসবেন কিনা, এ নিয়ে চারদিকে সন্দেহ ঘনীভূত হচ্ছে। সবার মধ্যে আলোচনা চলছে।’

এ সম্পর্কে ড. খন্দকার মোশাররফ বলেন, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের কোথা থেকে জেনেছেন, খালেদা জিয়া বিদেশে চলে গেছেন, তিনি আর ফিরবেন না। এসব বক্তব্য ষড়যন্ত্রমূলক। হেরে যাবে বুঝতে পেরেই সরকার একাদশ জাতীয় নির্বাচন নিয়ে ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে এসব করছে।

১৬ জুলাই খালেদা জিয়া হিথরো বিমানবন্দরে অবতরণ করেন। তিনি বর্তমানে লন্ডনে বড় ছেলে তারেক রহমান ও তার পরিবারের সঙ্গেই আছেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন যুক্তরাজ্য বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক শহিদুল ইসলাম মামুন।

 






Related News

Comments are Closed