Main Menu

দুদক হটলাইনে সেবাগ্রহীতার সংখ্যা ৫০ হাজার ছাড়িয়ে

ডেইলি বিডি নিউজঃ যখনই দুর্নীতির ঘটনা, তখনই অভিযোগ- এমন স্লোগানে দুর্নীতি দমন কমিশনে (দুদক) চালু হওয়া হটলাইন-১০৬ এ কল আসার সংখ্যা ৫০ হাজার ছাড়িয়ে গেল।

যাত্রা শুরু করার মাত্র ৪ দিনের মাথায় ৩০ জুলাই পর্য্ন্ত হটলাইনে অভিযোগকারী বা সেবাগ্রহীতার ফোন এসেছে ৫০ হাজার ১১২ বার। এর মধ্যে উদ্বোধনের দিন অর্থ্যাৎ ২৭ জুলাই (বৃহস্পতিবার) ও ৩০ জুলাই (রোববার) হটলাইনে ফোন আসে ৪ হাজার ৯৫১ ও ১৪ হাজার ১১২ বার। এমনকি সরকারি ছুটির দিন ২৮ ও ২৯ জুলাই যথাক্রমে ১২ হাজার ৯৪৯ ও ১৮ হাজার ১০০ জন সেবাগ্রহীতা ফোন করেন।

কল রেকর্ডের ওই পরিসংখ্যান নিশ্চিত করে সিস্টেম এনালাইসিস্ট রাজীব হাসান বলেন, হটলাইন চালু হওয়ার পর মানুষের এ বিষয়ে প্রচুর আগ্রহ দেখা যাচ্ছে। আমি কল রেকর্ডের সংখ্যা জানিয়েছি। ওই কলের মধ্যে অধিকাংশ সেবাগ্রহীতার সঙ্গে দুদক কথা বলতে পারেনি। তবে আমাদের কম্পিউটার সফটওয়্যারের মাধ্যমে রিসিভ হয়েছে। কারণ কল রেকর্ড অনুসারে দেখা যায় সরকারি ছুটির দিন শুক্রবার ও শনিবার ৩১ হাজারের বেশি কল এসেছে। এ ছাড়া রয়েছে অভিযোগের বাইরে বিভিন্ন তথ্য জানতে চাওয়া ফোন কলের রেকর্ড। তাই ফোন করা সকলকে অভিযোগকারী বলা যাবে না।

তিনি বলেন, হটলাইন উদ্বোধনের পর থেকে এ পর্য্ন্ত প্রায় ১৫০টি অভিযোগ আমরা কমিশনে জমা দিয়েছি। দুদকের তফসিলভুক্ত অপরাধ না হওয়ায় অধিকাংশ অভিযোগই গ্রহণ করা সম্ভব হচ্ছে না। হটলাইন দুদকের এক ধরনের নতুন সেবা। তাই আমরা অভিযোগকারী বা সেবাগ্রহীতার সকল তথ্য গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করছি। আমরা মনে করি যতই মানুষ দুদক সম্পর্কে জানবে ততই দুর্নীতির বিরুদ্ধে জনসাধারণ সচেতন হবে।

এর আগে ২৭ জুলাই দুদক অভিযোগ কেন্দ্রে হটলাইন-১০৬ উদ্বোধন করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

দুদক সূত্রে জানায়, সরকারি অফিস চলাকালীন সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত দুদকের হটলাইন-১০৬ নম্বরে ফ্রি কল করা যাবে। হটলাইনে অভিযোগকারীর নাম, ঠিকানা বা পরিচয় কোনো অবস্থাতেই প্রকাশ করা হবে না। কমিশনের প্রধান কার্যালয়ের তিন তলায় হটলাইন স্থাপন করা হয়েছে।






Related News

Comments are Closed