Main Menu

সীমান্তে মিয়ানমার সীমান্তরক্ষীদের ফাঁকা গুলিবর্ষণ

ডেইলি বিডি নিউজঃ বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির তমব্রু সীমান্তের শূণ্যরেখার রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বিপরীতে মিয়ানমার অভ্যন্তর থেকে মিয়ানমারের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিজিপি ফাঁকা গুলিবর্ষণ করেছে বলে জানিয়েছে বিজিবি।  এই ঘটনায় কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

বৃহস্পতিবার রাত ৮ টার দিকে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম ইউনিয়নের তমব্রু সীমান্তের বিপরীতে শূণ্যরেখার রোহিঙ্গা ক্যাম্পের কাছাকাছি এলাকার মিয়ানমার অভ্যন্তর থেকে এ গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটে বলে জানান বিজিবির ৩৪ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্ণেল মঞ্জুরুল হাসান খান।

তিনি বলেন, বৃহস্পতিবার রাত ৮ টার দিকে তমব্রু সীমান্তের শূণ্যরেখার রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বিপরীতে মিয়ানমার অভ্যন্তর থেকে ফাঁকা গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটেছে।

কয়েক সেকেন্ড পর পর ২ রাউন্ড ফাঁকা গুলিবর্ষণের শব্দ শোনা গেছে।  এসময় শূণ্যরেখার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বেশ হৈ-হুল্লোর শোনা যায়।  তবে এতে কেউ হতাহত হননি।

বিষয়টি তাৎক্ষণিক বিজিবির উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে জানিয়ে বিজিবি অধিনায়ক বলেন, বৃহস্পতিবার সকালে শূণ্যরেখার রোহিঙ্গাদের সেখান থেকে সরে যেতে হুমকি দেয়া এবং সীমান্তে অতিরিক্ত সৈন্য সমাবেশের পর থেকে বিজিবি কড়া সতর্ক অবস্থানে রয়েছে।  এছাড়া সীমান্তজুড়ে বাড়ানো হয়েছে নজরদারি।

তমব্রু সীমান্তের শূণ্যরেখার রোহিঙ্গা ক্যাম্পের মাঝি ( ব্লক ভিত্তিক প্রতিনিধি ) দিল মোহাম্মদ বলেন, রাত ৮টার দিকে মিয়ানমারের বিজিপির একটি দল সশস্ত্র অবস্থায় আকস্মিকভাবে সীমান্তের কাঁটাতারের বেড়া ডিঙ্গিয়ে ক্যাম্প হামলার চেষ্টা চালায়।

এ সময় শূণ্যরেখায় আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গারা সংগঠিত হয়ে দা-ছোরা আর লাঠি-সোটা নিয়ে বিজিপির সদস্যদের বাঁধা দিলে ফিরে যায়। এর পরপরই সীমান্তের ওপার থেকে ২ রাউন্ড ফাঁকা গুলিবর্ষণ করে।

মাঝি দিল মোহাম্মদ বলেন, গুলিবর্ষণ ঘটনার পর থেকে শূণ্যরেখার রোহিঙ্গা ক্যাম্প লক্ষ্য করে মিয়ানমার দিক হতে থেমে থেমে ইট-পাটকেল এবং পাথর নিক্ষেপ করা হচ্ছে।  এতে ক্যাম্পের রোহিঙ্গাদের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

একই কথা জানালেন, শূণ্যরেখার ক্যাম্পটির মাঝি ( ব্লক ভিত্তিক প্রতিনিধি ) মো. আরিফ ও শফিউল আলম। তবে রোহিঙ্গাদের মধ্যে এ নিয়ে আতঙ্ক বিরাজ করলেও কেউ শূণ্যরেখার ক্যাম্প ত্যাগ করেনি বলে জানান দিল মোহাম্মদ।






Related News

Comments are Closed