Main Menu

আমরা আছি নিম্ন-মধ্যবিত্ত পরিবারের পাশে- নাদেল চৌধুরী

ডেইলি বিডি নিউজঃ করোনাভাইরাসের প্রভাবে সারাবিশ্বই এক অসহনীয় দুর্ভোগের মাঝে সময় পার করছেন। বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশও এর ব্যতিক্রম নয়। তাই হোম কোয়ারেন্টিনে থাকা মানুষজনের মধ্যে খাবার সংকট দেখা দেওয়া অস্বাভাবিক নয়। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা অনুযায়ী সরকার নানামুখী উদ্যোগের মাধ্যমে সকলের কাছেই খাবার পৌঁছে দিচ্ছেন। সরকারের পাশাপাশি এগিয়ে এসেছেন সমাজের সহৃদয় ব্যক্তিবর্গও।

কিন্তু দুর্যোগের এই সময়ে সবচেয়ে বেশি বিপদে আছেন সমাজের “নিম্ন-মধ্যবিত্ত” শ্রেণির পরিবারগুলো। লোকলজ্জা ও সামাজিক অবস্থান বিবেচনায় তারা না পারেন সরকারি সাহায্য চাইতে, না পারেন বেসরকারি উদ্যোগে ত্রাণ সহায়তা নিয়ে এগিয়ে আসা মানুষের কাছে নিজের অসহায়ত্ব প্রকাশ করতে। ফলে, এই সময়ে তারা খুবই অসহায় অবস্থার মধ্যে দিনাতিপাত করছেন।

এ ধরণের পরিবারের প্রতি আমরা সহানুভূতিশীল। তাই, সমাজের সকল শ্রেণি-পেশার অসহায় মানুষদের মাঝে খাদ্য সহায়তা পৌঁছে দিতে চাই ।এখন আর সাহায্য প্রাথী কে সহায়তা গ্রহনের জন্য ত্রাণের লাইনে দাঁড়াতে হবে না।

এ প্রক্রিয়ায় সিলেট শহরের সাহায্য প্রাথীদের জন্য কয়েকটি সেলফোন নাম্বার দেওয়া থাকবে প্রকৃত অর্থেই বিপদাপন্ন “নিম্ন-মধ্যবিত্ত” শ্রেণির ব্যক্তিবর্গ সেসব নাম্বারে ফোন করলে, আমরা আপনাকে একটা দোকানের নাম দেবো সেই দোকান থেকে ১০০০ (এক হাজার) টাকার আপনার নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী নিতে পারবেন । তবে সরবরাহকৃত খাদ্য দ্রব্যের যে মূল্যমান দাঁড়াবে, সেই অর্থের ২০ শতাংশ সাহায্য প্রাথী কে পরিশোধ করতে হবে।( পরিবার প্রতি একবার সহায়তা করা হবে ) সামজিক অবস্থান বিবেচনা করে সাহায্য প্রাথীর পরিচয় প্রকাশ করা হবে না

এই মানবিক সহযোগিতার জন্য আমরা এগিয়ে এসেছি,আপনি/আপনারা একই ভাবে আপনাদের অবস্হান থেকে এগিয়ে আসতে পারেন এই মানবিকতার জন্য।
মহান সৃষ্টি কর্তা আমাদের সহায় হোন।

ঘরে থাকুন,নিরাপদে থাকুন।
করোনা মোকাবিলায় আপনি ও ভূমিকা রাখুন।
জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু।

শফিউল আলম চৌধুরী নাদেলের ফেসবুক থেকে নেয়া।






Related News

Comments are Closed