Main Menu

কুলাউড়া উপজেলা প্রকৌশলীর গাফলতিতে উন্নয়ন বঞ্চিত ১৩ ইউপি!

কুলাউড়া প্রতিনিধি: কুলাউড়া উপজেলা প্রকৌশলী খোয়াজুর রহমানের দায়সারা মতামতের ভিত্তিতে উন্নয়ন বঞ্চিত হচ্ছে কুলাউড়া উপজেলার ১৩ ইউনিয়নের কয়েক লক্ষ মানুষ।

জানা যায়, নির্বাহী প্রকৌশলী, এলজিইডি মৌলভীবাজার এর চাহিদা পত্রের প্রেক্ষিতে উপজেলা, ইউনিয়ন ও গ্রাম সড়কে অনুর্ধ্ব ১০০মিটার ব্রিজের নতুন ডিপিপি ২য় পর্যায় প্রনয়নের জন্য এ দায়সারা তথ্য প্রেরণ করেন তিনি।

যার স্মারক নং ৪৬.০২.০০০০.০০০.১৮.০০৮.১৯-৩৪২ এ উক্ত তথ্য জানতে চাওয়া হলে কুলাউড়া উপজেলা প্রকৌশলী খোয়াজুর রহমান গত ৮/১১/২০২০ইং স্মারক নং ৪৬.০২.৫৮৬৫.০০০.১৪.১২০.২০.৩০৬ পত্রে উল্লেখ করেন- উপজেলা, ইউনিয়ন ও গ্রাম সড়কে অনুর্ধব্ব ১০০ মিটার কোন ব্রিজের প্রয়োজন নেই এই উপজেলায়।
উল্লেখ্য, এ বিষয়ে কুলাউড়া উপজেলায় অনুর্ধ্ব ১০০মিটার ব্রীজের চাহিদাপত্র ইতিপূর্বে নির্বাহী প্রকৌশলী এলজিইডি মৌলভীবাজার বরাবরে ব্রিজের প্রয়োজন ছিল বলে তথ্য প্রেরন করা হয়েছিল।

কিন্তু বর্তমানে ডিপিপি প্রণয়নের চুড়ান্ত পর্যায়ে উপজেলা প্রকৌশলী কোনো ব্রীজের প্রয়োজন নাই বলে তথ্য প্রেরন করেন উপজেলা প্রকৌশলী খোয়াজুর রহমান এমন তথ্যে সরকারের উন্নয়নে বাধাগ্রস্ত হচ্ছে এ উপজেলা।

সংশ্লিষ্টদের ধারনা, এই পত্রের কারণে উন্নয়ন বঞ্চিত হচ্ছেন কুলাউড়া উপজেলার ১৩টি ইউনিয়নের কয়েক লক্ষ মানুষ।

এ বিষয়ে কুলাউড়া উপজেলার প্রকৌশলী খোয়াজুর রহমানের কাছে যোগাযোগ করলে তার কাছে এবিষয়ে কোন শদ্ব উত্তর পাওয়া যায়নি।

তবে এবিষয়ে কুলাউড়া উপজেলা কর্মধা ইউনিয়নের চেয়াম্যান এম. এ রহমান আতিক বলেন, আমার ইউনিয়নের জন্য অনুর্ধ্ব একশত মিটারের কয়েটি ব্রিজের প্রয়োজন আছে।






Related News

Comments are Closed