Main Menu

পস মেশিনে টাকা হাতিয়ে নেয়ার বর্ণনা দিলেন পিওটর

ডেইলি বিডি নিউজঃ এটিএম জালিয়াতির ঘটনায় গ্রেফতারকৃত বিদেশি নাগরিক পিওটর বর্ণনা দিয়েছেন  তিনি কীভাবে পস মেশিনের মাধ্যমে ব্যবসায়ীদের টাকা হাতিয়ে নিতেন। দ্বিতীয় দফায় রিমান্ডের প্রথম দিনে জার্মানির নাগরিক পিওটর এ তথ্য দিয়েছেন।

মঙ্গলবার দুপুরে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে অতিরিক্ত কমিশনার মনিরুল ইসলাম এ কথা জানান।

মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘পিওটর জার্মানির নাগরিক সেটি আমরা নিশ্চিত হয়েছি। তিনি জাল পাসপোর্ট ব্যবহার করতেন। আর নিজেকে পোল্যান্ডের নাগরিক হিসেবে পরিচয় দিতেন। গত এক বছরে সর্বাধুনিক প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে পিওটর কয়েক কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। এসব কাজে এ দেশের ৪০-৫০ জন ব্যবসায়ীও জড়িত বলে তিনি জানিয়েছেন।’

মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘পস মেশিন ব্যবহার করে পিওটর ক্রেডিট কার্ডের টাকা হাতিয়ে নিতেন। উদাহরণ হিসেবে পিওটর বলেছেন, একজন ব্যবসায়ী পস মেশিনের মাধ্যমে ১০ লাখ টাকা বিল পরিশোধ করছেন। এ সময় জালিয়াত চক্র ওই ক্রেডিট কার্ডের নম্বরটি গোপন ক্যামেরার মাধ্যমে চুরি করতো। এরপর ওই নম্বরটি দিয়ে ক্লোনিংয়ের মাধ্যমে আরেকটি কার্ড তৈরি করতো। এরপর পণ্য কিনে ওই কার্ড দিয়ে পস মেশিনে বিল পরিশোধের মাধ্যমে টাকা হাতিয়ে নিতো।’

তিনি আরো বলেন, ‘পিওটর রিমান্ডে অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছেন। তদন্তের স্বার্থে এখনই কিছু বলা যাচ্ছে না। তবে চক্রটি অত্যন্ত সংঘবদ্ধ। ইতিমধ্যে ৩-৪ জনকে আমরা শনাক্ত করেছি। বাকীদের ব্যাপারে যাচাই-বাছাই করছি।’

অপর এক প্রশ্নের জবাবে মনিরুল ইসলাম এটিএম কার্ড জালিয়াতির ঘটনায় পুলিশের জড়িত থাকার বিষয়টি অস্বীকার করেন। তবে তিনি বলেন, ‘এটিএম জালিয়াতির ঘটনায় ইন্টারন্যাশনাল ব্ল্যাক শিপ মার্কেটের হর্তাকর্তাদের নাম বেরিয়ে এসেছে।’

 






Related News

Comments are Closed