Main Menu

বঙ্গবন্ধু একটি আদর্শ নেতার নাম: সিলেটে যুবলীগের সভায় বক্তারা

ডেইলি বিডি নিউজঃ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে সিলেটে জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের ১০ দিনব্যাপী আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের ৪র্থ দিন শনিবারের আয়োজনে ছিল সিলেট জেলা ও মহানগর যুবলীগ।

এদিনের আলোচনা সভায় সিলেট মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমদ বলেন, বঙ্গবন্ধু একটি আদর্শ নেতার নাম। তিনি তাঁর ব্যক্তিত্ব, নেতৃত্ব, আদর্শ দিয়ে বাঙালি জাতিকে অধিকার আদায়ে উদ্বুদ্ধ করেছেন বারবার।

তিনি বলেন, একটি ভাষণ কীভাবে গোটা জাতিকে জাগিয়ে তোলে, স্বাধীনতার জন্য মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়তে উৎসাহিত করে, বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ তার অনন্য উদাহরণ। মুক্তিযুদ্ধকালীন পাকিস্তানের কারাগারে বন্দি অবস্থায় শাসকগোষ্ঠী তাঁকে প্রহসনমূলকভাবে ফাঁসির হুকুম দিয়েছিল। বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন, “আমি মুসলমান। আমি জানি, মুসলমান মাত্র একবারই মরে। তাই আমি ঠিক করেছিলাম আমি তাদের কাছে নতি স্বীকার করবো না। ফাঁসির মঞ্চে যাওয়ার সময় আমি বলব, আমি বাঙালি, বাংলা আমার দেশ, বাংলা আমার ভাষা”।

সিলেট জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এড. নাসির উদ্দিন খান বলেন, বঙ্গবন্ধু একটি উপমা। যার সাহস হিমালয়ের মতো বিশাল আর দেশপ্রেম সাগরের চেয়েও গভীর। অত্যাচারী শোষকদের প্রতি তিনি ছিলেন অত্যন্ত কঠোর আর দেশের শোষিত, নিরীহ, খেটে খাওয়া মানুষের প্রতি তিনি ছিলেন অত্যন্ত কোমল ও দরদি। সারাজীবন দেশ ও দেশের মানুষের অধিকার আদায়ে তিনি সংগ্রাম করে গেছেন।

মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেন বলেন,ব্যক্তি হিসেবে বঙ্গবন্ধু ছিলেন স্পষ্টভাষী এবং আদর্শবান। নিজে অন্যায় করেননি এবং কখনও অন্যায়ের সঙ্গে আপসও করেননি। পাকিস্তানি শোষকদের সব রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করেছেন সবসময়। যার ফলে জীবনের সোনালি সময়ের অধিকাংশটাই কাটাতে হয়েছে পরিবার-পরিজন থেকে দূরে অন্ধকার কারাগারে।

জেলা যুবলীগের সভাপতি শামীম আহমদ ভিপির সভাপতিত্বে ও মহানগর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মুসফিক জায়গীরদারের পরিচলনায় বক্তব্য রাখেন রাখেন মহানগর যুবলীগের আলম খান মুক্তি ও জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. শামীম আহমদ।

সিলেট জেলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কবির উদ্দিন আহমদ, সাংগঠনিক সম্পাদক এড. রঞ্জিত সরকার, শিক্ষা ও মানব সম্পদ বিষয়ক সম্পাদক বুরহান উদ্দিন আহমদ, সাংস্কৃতিক সম্পাদক সামসুল আলম সেলিম, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা: মোহাম্মদ সাকির আহমদ (শাহীন), উপ-দফতর সম্পাদক মো. মজির উদ্দিন।

মহানগর আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সহসভাপতি জগদীশ চন্দ্র দাশ, কৃষি বিষয়ক সম্পাদক তপন মিত্র, দপ্তর সম্পাদক খন্দকার মহসিন কামরান, যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক সেলিম আহমদ সেলিম, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক আজিজুল হক মঞ্জু, সাংস্কৃতিক সম্পাদক রজত কান্তি গুপ্ত, সদস্য জামাল আহমদ চৌধুরী, সাব্বির খান।

অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সিলেট জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক জালাল উদ্দিন আহমদ কয়েছ। এছাড়াও উপজেলা ও পৌর যুবলীগ এবং মহানগর যুবলীগের ২৭টি ওয়ার্ডের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দও উপস্থিত ছিলেন।






Related News

Comments are Closed