Main Menu

কঠোর লকডাউনে সিলেটে ওসি মাইনুল জাকিরের মানবতা দেখে মুগ্ধ জনতা

বিশেষ প্রতিনিধি ঃ লকডাউন চলাকালে এক বৃদ্ধের প্রতি সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের এয়ারপোর্ট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) খান মোহাম্মদ মাইনুল জাকিরের মানবতা দেখে মুগ্ধ জনতা।

দেশের আইন শৃঙ্খলা রক্ষার অতন্ত্র প্রহরি হিসাবে কাজ করছে বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনী। তবে কিছু পুলিশ সদস্যদের ন্যাক্কার জনক আচরণ দেখে দিন দিন আস্থা হারাচ্ছে জনগন, কিন্তু আজকে এক ওসির দায়িত্ব পালন দেখে মুগ্ধ উপস্তিত জনতা। এ সময়ের সৎ, দক্ষ, সাহসী এ অফিসার যেন সমগ্র পুলিশ বাহিনীর গর্ব, জনগণের আস্থা ধরে রাখতে এমন পুলিশ অফিসারের প্রয়োজন বলে মনে করেন স্থানীয়রা। এমনকি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ওসির মানবার এই ছবিটি ভাইরাল হয়েছে। মানুষের প্রশংসায় ভাসছেন এই ওসি।
রোববার লকডাউন চলাকালে এয়ারপোর্ট রোডে চেকপোস্টে এক বৃদ্ধ মাস্ক পড়ে পায়ে হেঁটে যাচ্ছেন। কোথাও কোন গাড়ি না পেয়ে পায়ে হেঁটে চিকিৎসা করানোর জন্য রওনা দেন এই লোক। এমন সময় ওসি ওই লোকটিকে ধরে ধরে রাস্তা পার করে কিছু সময় চেয়ারে বসিয়ে রাখেন এবং একটি গাড়ি ঢেকে এনে গাড়িতে উঠিয়ে দেন।

এয়ারপোর্ট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) খান মোহাম্মদ মাইনুল জাকির বলেন,`মানুষ মানুষের জন্য। আজকে লকডাউন চলাকালে এয়ারপোর্ট রোডে চেকপোস্টে বয়সের ভারে নতজানু চাচাজি চিকিৎসা করানোর জন্য রাস্তা দিয়ে হেঁটে হেঁটে যাওয়ার সময় চাচাকে ধরে ধরে রাস্তা পার করে কিছু সময় চেয়ারে বসিয়ে রেখে একটি গাড়ি ঢেকে এনে গাড়িতে উঠিয়ে দিলাম। আসুন আমরা সবাই চাচার মতো মাস্ক ব্যবহার করি এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলি। অর্থাৎ মাস্ক পরার অভ্যেস করি করোনামুক্ত দেশ গড়ি।






Related News

Comments are Closed